• বুধবার ০৪ অক্টোবর ২০২৩ ||

  • আশ্বিন ১৮ ১৪৩০

  • || ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

আজকের খুলনা

বিয়ের পর নারীদের ওজন বাড়ে কেন?

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

বিয়ের পর অনেক নারী-পুরুষেরই ওজন বেড়ে যাওয়ার সমস্যা তৈরি হয়। বিশেষ করে নারীদের ওজন তো কম বেশি বাড়েই।

‘অনলি মাই হেলথ’ এর এক গবেষণা জানিয়েছে, বিয়ের পর আপনি সুখী হোন বা অসুখী দুই ক্ষেত্রেই ওজন বাড়ার ব্যাপক সম্ভাবনা আছে। নারী-পুরুষ উভয়েরই ওজন বাড়ে। তবে পুরুষের তুলনায় নারীর ওজন বাড়ার সম্ভাবনা আড়াই গুণেরও বেশি। কেননা নারী শারীরিক, মানসিক, পারিপার্শ্বিক যত পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যান, পুরুষের জীবনে তত পরিবর্তন আসে না। বিয়ের পরে ওজন বৃদ্ধির বিষয়টিকে ইংরেজিতে ‘লাভ ওয়েট’ বলা হয়।

‘লাভ ওয়েট’ নিয়ে গবেষকরা নানা রকম গবেষণা ও সমীক্ষাও চালিয়েছেন। ঠিক কী কারণে বিয়ের পর ওজন বেড়ে যায়। বিয়ের প্রথম বছরে গড়ে নারীর ওজন বাড়ে পাঁচ পাউন্ড বা দুই কেজির একটু বেশি। অনেকের ধারণা বিয়ের পর নিয়মিত শারীরিক মিলনই ওজন বৃদ্ধির কারণ। এই ধারণা মোটেও ঠিক নয়। বেশিরভাগ চিকিৎসকই জানিয়েছেন নিয়মিত শারীরিক সম্পর্কের কারণে নারীর ওজন বাড়ে না। কারণ অনেক সময় শরীরে কিছু হরমোনের পরিবর্তন হয়, যা ওজনে প্রভাব ফেলতে পারে। শুধু নারী নয় পুরুষেরও ওজন বাড়ে। তবে ওজন বাড়ার সঙ্গে দৈনন্দিন শারীরিক মিলনের কোনো সম্পর্ক নেই। আসুন জেনে নেই বিয়ের পরে কেন ওজন বাড়ে-

বিয়ের আগে অনেক মেয়েই ওজন নিয়ে বেশ সচেতন থাকেন। খাওয়া-দাওয়া নিয়ন্ত্রণে রাখেন ও শরীরচর্চাও শুরু করেন কেউ কেউ। তবে বিয়ের পর সেটা পুরোপুরি চলে না গেলেও, বেশির ভাগের ক্ষেত্রে তা কিছুটা কমে যায়। জীবনসঙ্গী পাওয়ার পরে তারা নিজের যত্ন নেওয়া কমিয়ে দেন। কেউ আবার সময়ের অভাবে শরীরের প্রতি যত্ন নিতে পারেন না। ফলে ওজন বেড়ে যায়।

মানুষ ভালোবাসা পেলে নিরাপদ বোধ করে ও সুখী হয়। তখন তার খাবারের প্রতি আকর্ষণ বেড়ে যায়। বিশেষ করে মিষ্টি ও পনিরজাতীয় খাবারের প্রতি চাহিদা বাড়ে।

বিয়ের পর মেয়েদের খাদ্যাভ্যাসে বড় বদল আসে। বিশেষ করে বাংলাদেশ ও ভারতের মতো দেশে বিয়ের পর আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে দাওয়াতের হিড়িক পড়ে যায়। প্রায় এক বছর পর্যন্ত চলতে থাকে নানা আয়োজন।

আত্মীয়স্বজনদের বাড়িতে রোজ রোজ নানা ধরণের মজাদার খাবার খাওয়া হয় তাই ওজন বেড়ে যাওয়া স্বাভাবিক।

বিয়ের পরে নতুন কয়েকটি দায়িত্ব এসে পড়ে। সংসারের পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রটিও সমান দক্ষতায় সামাল দিতে হয়। ফলে মানসিক চাপ বাড়ে ঘুম কমে যায়। এছাড়া নতুন পরিবেশে মানিয়ে নিতে সময় লাগে। অচেনা পরিবেশেও অনেকের ঘুম আসতে সমস্যা হয়। ঘুমের অনিয়মও ওজন বাড়িয়ে দেয়।

প্রথম কিছুদিন বিয়ের যাবতীয় অনুষ্ঠানের কারণে ঠিকমতো খাওয়া হয় না। তবুও মিষ্টি, কেক, কোক খাওয়ার পরিমাণ বেড়ে যায়। সেই কারণেও শরীরের অবস্থা খারাপ হয়ে যায়।

বিয়ের পর খাওয়া-দাওয়ার ধরণ, খাওয়ার পরিমাণ ও সময় সবকিছুই বদলে যায়। সেই কারণেও ওজন বাড়তে পারে। নারীদের ক্ষেত্রে দেখা যায় বাবার বাড়িতে যে ধরনের খাবারে অভ্যস্ত ছিলেন শ্বশুরবাড়িতে সেটার ভিন্নতা থাকে। এতে ইনটেসটাইনের ওপর চাপ পড়ে। ভিটামিন বি স্টোরেজের অবস্থা একেবারে শেষপ্রান্তে এসে পড়ে। শারীরিকভাবে তো বটেই, মানসিকভাবেও অশান্তি হয়। ফলে ওজন বাড়তে পারে।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, বিয়ের পর নারীদের ওজন বেড়ে যাওয়ার পেছনে জিনগত কারণও রয়েছে। দেখা গেছে, যে নারীদের মায়ের ওজন বিয়ের পর বেড়েছে, তাদের মেয়েদের মধ্যেও অনেক ক্ষেত্রে সেই প্রবণতা চোখে পড়েছে। স্বাস্থ্যকর ও পরিমিত খাদ্যাভ্যাস, নিয়মিত শরীরচর্চা করলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা