• বুধবার   ০৬ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

আজকের খুলনা

ঘোষণা ছাড়াই এবার সয়া‌বি‌নের মূল‌্য বৃ‌দ্ধি!

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১ ফেব্রুয়ারি ২০২২  

আন্তর্জাতিক বাজারের দোহাই দিয়ে আবারও বাড়ানো হয়েছে ভোজ্য তেলের দাম। লিটারে বেড়েছে পাঁচ টাকা। গত একসপ্তাহ ধরে প্রতিলিটার সয়াবিন তেল ১৬০ টাকায় কিনতে হচ্ছে ক্রেতাকে। যদিও গত কয়েকদিন আগে বাণিজ্যমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন যে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারির আগে ভোজ্য তেলের দাম বৃদ্ধি করা হবে না। নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যটির মূল্যবৃদ্ধিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ক্রেতারা।

খুলনা নগরীর কয়েকটি বাজার ঘুরে জানা গেছে, এক লিটার সয়াবিন তেল ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কোম্পানীভেদে পাঁচ লিটারের বোতল ৭৫০ টাকা থেকে ৭৮০ টাকায় বিক্রি করছেন দোকানীরা। গত এক সপ্তাহ আগে এক লিটারের বোতল ১৫৫ টাকা ও পাঁচ লিটার ৭৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। অপরদিকে খোলা তেলেও প্রতিকেজিতে তিন টাকা করে বৃদ্ধি পেয়েছে।

,এক সপ্তাহ ধরে এ দরে পণ্যটি বিক্রি করছেন। বাজারে হঠাৎ ভোজ‌্যতে‌লের মূল্যবৃদ্ধি পাওয়ায় তাকে এ দরে বিক্রি করতে হচ্ছে। যদিও বাণিজ্যমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন যে তেলের দাম বৃদ্ধি করা হবেনা। কিন্তু ব্যবসায়ীরা যদি দাম বৃদ্ধি করে দেয় তাহলে আমাদের কিছু করার থাকেনা।

২০২০ সালের শেষ থেকে এ বছরের শুরু পর্যন্ত ১০ দফা তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিমাসে এটির দাম হয় দু’টাকা না হয় পাঁচ টাকা করে বাড়াচ্ছেন পাইকারী ব্যবসায়ীরা।

নগরীর বড় বাজারের পাইকারী খোলা তেল ব্যবসায়ী মেসার্স রেজা এ্যান্ড ব্রাদার্সের মালিক মো: শাহ আলম সরদার বলেন, এবার কোন ঘোষণা ছাড়াই তেলে দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে। রীতিমতো বড় ব্যবসায়ীদের ডাকাতি। গত এক সপ্তাহ আগে যে তেল তিনি ১৫৩ টাকায় বিক্রি করেছেন এখন তাকে ১৫৬ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে। সামনে আরও বাড়বে বলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।

রূপচাঁদা তেল কোম্পানীর খুলনার একমাত্র পরিবেশক জানান, প্রতিলিটার তেলে পাঁচ টাকা করে বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে কি কারণে এ মূল্যবৃদ্ধি তা তিনি বলতে পারেনি। তবে কোম্পানী এ পণ্যটির মূল্য নির্ধারণ করে দিলে আমাদের কিছু করার থাকেনা। তাছাড়া পূর্ব নির্ধারিত মূল্যের কোন তেল তাদের গোডাউনে নেই বলে সেখান থেকে জানানো হয়েছে।

নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যটির লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধিতে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির আগাম খবর জেনে অনেক খুচরা ব্যবসায়ী এ পণ্যটি মজুদ করে। আবার অনেকেই নির্ধারিত মূল্যে থেকে বেশী দরে বিক্রি করছেন। দেখার কেউ নেই। আমাদের দেশে কোন ক্ষেত্রে কোন জবাবদিহিতা নেই। ৯৪ টাকার তেল এখন ১৬০ টাকায় ক্রয় করতে হচ্ছে। বাণিজ্যমন্ত্রীর নির্দেশ উপেক্ষা করে ব্যবসায়ীরা আরও একদফা তেলের মূল্য বাড়িয়েছে। প্রতিটি পণ্যের দাম যেভাবে হু হু করে বাড়ছে তাতে করে আমাদের মতো মধ্যবিত্তকে না খেয়ে মরা ছাড়া কোন পথ খোলা থাকবেনা। তিনি বাজার তদারকির জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা