• রোববার ২৩ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৯ ১৪৩১

  • || ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আজকের খুলনা

এমপি আনার হত্যায় জড়িত শিলিস্তি রহমান কে?

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২৪  

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যাকাণ্ডে এক নারীর নাম বেড়িয়ে এসেছে। তার নাম শিলিস্তি রহমান। ঘটনার আগে ওই নারী কলকাতার সঞ্জিতা গার্ডেনের ফ্ল্যাটে অবস্থান করছিল বলে তদন্তসংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন

জানা গেছে, ‘হত্যা মিশন’ ঘটিয়ে মূল ঘাতক আমানউল্লাহ আমানের সঙ্গে ওই নারী ১৫ মে দেশে ফেরত আসেন। যাকে ডিবি পুলিশ গোয়েন্দা হেফাজতে নিয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। শিলিস্তি রহমান হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী আক্তারুজ্জামান শাহীনের বান্ধবী। এ কারণে তার বিষয়ে বিস্তারিত তদন্ত চলছে। যদিও তার বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা এখনও কোন তথ্য দেয়নি।

কলকাতা পুলিশের বরাতে তদন্তসংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, ফ্ল্যাটের সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ১৩ মে ওই ফ্ল্যাটে ৩ জন প্রবেশ করেন। সঙ্গে ছিল ওই নারী। ১৫ মে বিমানযোগে তারা দেশে ফেরেন। মূলত ওই নারীকে কলকাতা নেওয়া হয় আনারকে ফাঁদে ফেলে। সব পরিকল্পনা করে শাহীন ১০ মে দেশে ফিরে এলেও শিলিস্তি থেকে যান কলকাতায়। হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী সংসদ সদস্য আনারের ছোটবেলার বন্ধু ও ব্যবসায়ীক পার্টনার আক্তারুজ্জামান শাহীন। তিনিও ঝিনাইদহের বাসিন্দা। শহীন হত্যার পরিকল্পনা করে তা বাস্তবায়নের জন্য আমানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। সেখানে বসেই হত্যার চূড়ান্ত নকশা করা হয়। পরে আমানসহ ৬ জনের একটি দল ট্র্যাপে ফেলে আনারকে ডেকে আনে। এরপর তাকে জিম্মি করে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা করা হয়। এরপরই তার মরদেহ টুকরো টুকরো করা হয়, যা এখনও উদ্ধার করতে পারেনি দুদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

বিভিন্ন গণমাধ্যমের ফুটেজে দেখা যায়, আমান ও তার সহযোগীরা ট্রলিব্যাগ আনা-নেওয়া করছেন। এমপি আনারের রাখা জুতা বাইরে থেকে ভেতরে নেওয়া হচ্ছে। এক নারী পলিথিনে ব্লিচিং পাউডার নিয়ে আসছেন। যে ফুটেজ এদেশের গোয়েন্দাদের কাছেও আসে। এরপরই ওই নারীকে হেফাজতে নেয় ঢাকার গোয়েন্দারা।

উল্লেখ্য, ১২ মে চিকিৎসার জন্য ভারত যান সংসদ সদস্য আনার। এরপর থেকে তাকে আর খুঁজে পাচ্ছিল না স্বজনেরা। পরে তার মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন এ ঘটনা ঢাকার ডিবি পুলিশকে জানায়। এরপরই তার হত্যার বিষয়ে নানা রহস্য বের হয়ে আসছে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা