• সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ৪ ১৪২৮

  • || ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আজকের খুলনা

শুভ জন্মদিন ॥ আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০২১  

একটি কবিতা লিখেই বাংলাদেশের ইতিহাসের অংশ হয়ে আছেন তিনি। বাঙালীর স্বাধিকার আন্দোলনের প্রথম সোপান বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন স্পর্শ করেছিল তাকে। লিখেছিলেন এক অমর কবিতা। অমর সুরকার আলতাফ মাহমুদের সুরে আজ তা বিশ্বজুড়ে একুশের প্রভাতফেরির গান হিসেবে গাওয়া হয়। একুশে ফেব্রুয়ারির সঙ্গে, ভাষা আন্দোলনের সঙ্গে এভাবেই নিজেকে যুক্ত করে ফেলেছিলেন তিনি। বাঙালী চিরদিন স্মরণ করবে এই গানটি। আর স্মরণ করবে এই গানের গীতিকার আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীকেও।

প্রখ্যাত সাহিত্যিক-সাংবাদিক আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর জন্মদিন ১২ ডিসেম্বর। ১৯৩৪ সালের এই দিনে বরিশাল জেলার উলানিয়া গ্রামের চৌধুরীবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

অমর একুশের গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’র রচয়িতা গাফ্‌ফার চৌধুরী ১৯৪৭ সাল থেকে সংবাদপত্রের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। দৈনিক ইনসাফ, সংবাদ, মাসিক সওগাত, দিলরুবা, মেঘনা, ইত্তেফাক, আজাদ, জেহাদ, পূর্বদেশসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেন এই বরেণ্য সাংবাদিক।

১৯৭১ সালে কলকাতা থেকে মুজিবনগর সরকারের মুখপত্র সাপ্তাহিক ‘জয়বাংলা’য় লেখালেখি করেন। এ সময় তিনি কলকাতায় দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা ও যুগান্তরে কলামিস্ট হিসেবে কাজ করেন। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালে ‘দৈনিক জনপদ’ বের করেন।

আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী ১৯৭৪ সালের অক্টোবর মাসে লন্ডনের উদ্দেশে পাড়ি জমান। প্রবাসী হয়েও এখনও তিনি সমসাময়িক রাজনৈতিক ঘটনাবলি নিয়ে বাংলাদেশের প্রধান পত্রিকাগুলোতে নিয়মিত লিখে যাচ্ছেন।

সাংবাদিকতায় যেমন তার অবদান আছে, তেমনি সাহিত্যিক হিসেবেও খ্যাতিমান তিনি। ‘চন্দ্রদ্বীপের উপাখ্যান’, ‘সম্রাটের ছবি’, ‘ধীরে বহে বুড়িগঙ্গা’, ‘বাঙালি না বাংলাদেশী’সহ তার প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা প্রায় ৩০টি। তার রচিত নাটকের মধ্যে আছে ‘পলাশী থেকে বাংলাদেশ’, ‘একজন তাহমিনা’ ও ‘রক্তাক্ত আগস্ট’।

আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী ১৯৬৩ সালে ইউনেস্কো পুরস্কার, বাংলা একাডেমি পদক, একুশে পদক, শেরেবাংলা পদক, বঙ্গবন্ধু পদকসহ অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা