• শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১ ১৪৩১

  • || ০৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আজকের খুলনা

ভারতে দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত শতাধিক, বহু হতাহতের শঙ্কা

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২ জুন ২০২৩  

ভারতের উড়িষ্যায় ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে কলকাতার হাওড়া-চেন্নাইগামী ট্রেন করমণ্ডল এক্সপ্রেস। পশ্চিমবঙ্গের সীমান্ত লাগোয়া উড়িষ্যার বালেশ্বর জেলায় শুক্রবার সন্ধ্যায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে করমণ্ডল এক্সপ্রেস। এতে বহু আহত ও নিহত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, ওড়িশার বালেশ্বরের কাছে দুর্ঘটনায় চেন্নাইগামী করমণ্ডল এক্সপ্রেস। ট্রেনটির একাধিক কামরা বেলাইন হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। অন্তত শতাধিক মৃত্যু হয়েছে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। আহত হয়েছেন ৬ শতাধিক। ১৭৯ জনকে বালেশ্বরের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে বলে রেল সূত্রে জানা যাচ্ছে।

জানা গিয়েছে, দুপুর ৩টে ১৫ মিনিট নাগাদ শালিমার স্টেশন থেকে ছাড়ে ১২৮৪১ আপ করমণ্ডল এক্সপ্রেস। পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়্গপুর স্টেশন ছাড়ে বিকেল সওয়া ৫টায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা নাগাদ ট্রেনটি পৌঁছয় বালেশ্বরে। কাছেই বাহানগা বাজারের কাছে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ২৩ কামরার ট্রেনটি। তবে ট্রেন দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত হয়েছেন কি না, তা এখনও জানা যায়নি। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও জানা যায়নি।

সূত্র জানিয়েছে, বিকেলে ৩টা ২৫ মিনিটের দিকে ট্রেনটি পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলার শালিমার স্টেশন থেকে ছেড়েছিল এবং চেন্নাই যাচ্ছিল। ট্রেনটিতে পশ্চিমবঙ্গের পাশাপশি বহু বাংলাদেশি নাগরিক দক্ষিণের ভেলোরে চিকিৎসা নিতে নিয়মিত যাতায়াত করেন। ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে দুর্ঘটনার শিকার হতে পারেন অনেক বাংলাদেশি।

জানা গিয়েছে সন্ধ্যা পৌনে ৭টা থেকে ৭টার মধ্যে বালেশ্বর স্টেশন থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে বাহানাগা স্টেশনের কাছে লাইনচ্যুত হয়ে যায় ট্রেনটির একাধিক কামরা। মালগাড়ির সঙ্গে ধাক্কা লেগেই ট্রেনটির তিনটি কামরা বাদ দিয়ে ১৮টি কামরা লাইনচ্যুত হয়ে যায়। লাইনচ্যুত হয়েছে ট্রেনটির ইঞ্জিনের পর থেকে স্লিপার ক্লাস, প্যান্ট্রি কারসহ যাত্রীবাহী বগিগুলো। দুর্ঘটনার অভিঘাত এতটাই বেশি ছিল যে করমণ্ডল এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনটি মালগাড়ির উপর উঠে গিয়েছে।

রেল সূত্রে জানানো হয়েছে ঘটনায় বেশ কয়েকজন যাত্রী আহত হয়েছেন। তবে ঠিক কত যাত্রী আহত বা কেউ নিহত হয়েছেন কী না তা এখনও রেলের তরফে স্পষ্ট করে জানানো হয়নি। বিশেষত রাতের অন্ধকারে ট্রেন দুর্ঘটনাটি ঠিক কতটা ভয়াবহ হয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রাই প্রথমে উদ্ধার কাজে হাত লাগান। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছন রেল আধিকারিক, কর্মী সহ বিশাল পুলিশ ও উদ্ধারকারী বাহিনী। রিলিফ ভ্যান ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে বলে খবর।

দুর্ঘটনার জেরে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন যাত্রীরা। দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্রেন যাত্রীদের কথায়, ‘হঠাৎ করে এক বিকট আওয়াজ হয়ে থেমে যায় ট্রেনটি।’একটি মালগাড়ি এবং এক্সপ্রেস ট্রেনটি একই লাইনে কোনোভাবে চলে এসেছিল। কী ভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, করমণ্ডল এক্সপ্রেসে পশ্চিমবঙ্গ, ছাড়াও বাংলাদেশ থেকে প্রচুর মানুষ ভেলোরে চিকিৎসার জন্য নিত্য যাতায়াত করেন। ফলে পশ্চিমবঙ্গসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার মানুষের বিপদের আশঙ্কা রয়েছে। এখনও কতজন মানুষ ভিতরে আটকে রয়েছেন, তা খতিয়ে দেখার চেষ্টা চলছে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা