• সোমবার   ০৩ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৮ ১৪২৯

  • || ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

আজকের খুলনা

দক্ষ চালক তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে খুলনা মহিলা টিটিসি

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২  

জিফাত রহমান সাথী। বয়স ২৮। আত্মপ্রত্যয়ী এক যুবতী। আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে নিজেকে স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে ভর্তি হন খানজাহানআলী থানার তেলিগাতী কুয়েট রোডে অবস্থিত খুলনা মহিলা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ৩ মাসব্যাপী ড্রাইভিং উইথ অটোমেকানিক্স কোর্সে। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় সাথী উক্ত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষণ কারের ড্রাইভিং সিটে বসে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। পাশের সিটে বসে তাঁকে ড্রাইভিং সম্পর্কিত নির্দেশনা প্রদান করছেন কেন্দ্রের একজন দক্ষ প্রশিক্ষক। সাথীর মতো অনেক যুবক-যুবতী এ প্রশিক্ষণ কোর্সের মাধ্যমে দক্ষ চালক হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করছেন।

দেশে এবং প্রবাসে দক্ষ ড্রাইভিং পেশার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। উপযুক্ত প্রশিক্ষণের অভাবে অদক্ষ, আধাদক্ষ জনশক্তি প্রতিবছর দেশের বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ড্রাইভিং পেশার সংগে যুক্ত হচ্ছেন। এদের মধ্যে অনেকেরই নেই কোন প্রাতিষ্ঠানিক সনদ কিংবা বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ। সমীক্ষায় দেখা গেছে বাংলাদেশে সড়ক দূর্ঘটনার অন্যতম কারণ হলো অদক্ষ চালক। নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দক্ষ চালক তৈরীর কোন বিকল্প নেই। দক্ষ চালক তৈরীর অন্যতম মাধ্যম হলো সঠিক প্রশিক্ষণ। ড্রাইভিং পেশায় উপযুক্ত প্রশিক্ষণ না নিয়ে বিদেশে গিয়েও তারা আশানুরূপ আয় করতে ব্যর্থ হচ্ছে।

ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ এর মাধ্যমে দক্ষ চালক তৈরি করে দেশে এবং প্রবাসে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে খুলনা মহিলা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করছে।

প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ড্রাইভিং ট্রেডের ইনচার্জ এস এম ইব্রাহিম আহমেদ ড্রাইভিং ইউথ অটোমেকানিক্স কোর্সের প্রশিক্ষণার্থীদের ২টি পৃথক অত্যাধুনিক গাড়ির সমন্বয়ে দক্ষ প্রশিক্ষক দ্বারা প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে। শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ক্লাসরুম, অটোমেকানিক্স এর তাত্ত্বিক বিষয় ছাড়াও ইংরেজি ও আরবী ভাষায় ক্লাস নেওয়া হয়। এছাড়া অত্যাধুনিক সিমুলেটর ব্যবহার, ইন্টারনেট, মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম সহ আধুনিক সকল সুবিধা এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিদ্যমান রয়েছে।

প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি গত এক বছরে ১৬০ জন যুবক, যুবতীকে প্রশিক্ষণ প্রদানপূর্বক তাদেরকে সরকারি খরচে বিএমইটি কর্তৃক আন্তর্জাতিক মানের সার্টিফিকেট এবং বিআরটিএ কর্তৃক স্মার্ট লাইসেন্সও প্রদান করেছেন। প্রশিক্ষণকালীন সময় এসকল প্রশিক্ষণার্থীদের যাতায়াত ভাতাও সরকারিভাবে প্রদান করা হয়। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এ সকল যুবক, যুবতী ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ড্রাইভিং পেশায় চাকুরী করছেন। এদেরমধ্যে বেশ কয়েকজন প্রশিক্ষণার্থী সৌদিআরব, দুবাই, কুয়েত, রোমানিয়া, জাপান, দক্ষিন কোরিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশে ড্রাইভিং পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন।

প্রবাসী কল্যান ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় কর্তৃক পরিচালিত জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন “দেশ-বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ প্রদান” শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৩ মাস মেয়াদী এ কোর্সে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে।

এছাড়াও অত্র প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে SKILL FOR EMPLOYMENT INVESTMENT PROGRAM (SEIP) প্রকল্পের আওতায় ৪ মাসব্যাপী মোটর ড্রাইভিং উইথ বেসিক মেইনটেন্যান্স কোর্সে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে। এ প্রকল্পের আওতায় এ পর্যন্ত অত্র প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে ৩২০ জন যুবক যুবতী সফলভাবে কোর্স সম্পন্ন করে দেশে এবং দেশের বাইরে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ড্রাইভিং পেশায় চাকুরীর সুযোগ পেয়েছেন। SEIP প্রকল্পের মাধ্যমেও প্রশিক্ষণার্থী যুবক যুবতীদের ফ্রি প্রশিক্ষণ, ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং প্রশিক্ষণ চলাকালীন ভাতা প্রদান করা হয়ে থাকে।

প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ রিয়াজ শরীফ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে সারা দেশে সড়ক দূর্ঘটনা রোধকল্পে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে দক্ষ চালক তৈরীর লক্ষ্যে দেশের অন্যান্য কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ন্যায় খুলনা মহিলা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কোটি টাকা মূল্যের ২ টি নিউ ব্রান্ডের প্রশিক্ষণ কার প্রদান করেছেন। উদ্দেশ্য সারা দেশে এক বছরে এক লক্ষ দক্ষ চালক তৈরী করা। খুলনা মহিলা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ড্রাইভিং কোর্সে মহিলা কোঠা পূর্ন না হওয়ায় পুরুষ প্রশিক্ষণার্থীদের ভর্তির মাধ্যমে কোঠা পূরণ করা হয়ে থাকে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা