• সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

  • || ২২ শা'বান ১৪৪৫

আজকের খুলনা

খুলনায় দুই পু‌লিশ হত‌্যায় বি‌স্ফোরক মামলায় ৮ আসা‌মির খালাস

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০২২  

খুলনায় দুই পুলিশ সদস্য হত্যার দায়ে আদালত ৮ আসামিকে খালাস দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার (০১ ডিসেম্বর) খুলনা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মাহমুদা খাতুন এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওই আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী কে এম ইকবাল হোসেন

খালাসপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, আব্দুর রশিদ মালিথা তপন. মিলন, কামাল, বিপ্লব, শেখ শাহাদাৎ হোসেন রাজু, আসাদুজ্জামান টিপু, একরাম হোসেন ও রফিকুল ইসলাম মিল্টন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০০৩ সালের ৩ মার্চ পুলিশ সদস্য শরীফুল, রমেশচন্দ্র, নিজাম উদ্দিন ও মনিরুজ্জামান নগরীর পাওয়ার হাউস মোড়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন। সন্ধ্যা ৭ টা ৫০ মিনিটের দিকে কিছু বুঝে ওঠার আগেই দুর্বৃত্তরা তাদের ওপর বোমা নিক্ষেপ করে। বোমার আঘাতে পুলিশ সদস্য মনিরুজ্জামানের পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। অপর দুই পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হন। তাদের অবস্থা মারাত্মক সংকটাপন্ন হয়ে পড়ে। এ সুযোগে দুর্বৃত্তরা রমেশ চন্দ্রের নামে সরকারি অস্ত্র শর্টগান ৯৭ মডেল ও ৭ রাউন্ড গুলি নিয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে তাদের মধ্যে শরীফুল ও রমেশচন্দ্রকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

এ ঘটনায় সোনাডাঙ্গা থানার এস আই আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দু’টি পৃথক মামলা দায়ের করেন অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে। মামলায় তিনজন তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন হয়। সর্বশেষ ২০০৪ সালের ৪ সেপ্টেম্বর এস আই অরবিন্দু বিশ্বাস ১০ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

অভিযোগপত্র ভুক্ত আসামিরা হল, পূর্ববাংলার কমিউনিষ্ট পার্টির খুলনা বিভাগীয় নেতা আব্দুর রশিদ মালিথা তপন, মাশিকুল ইসলাম মফিজ ওরফে নাসিম, শরীফুজ্জামান ওরফে সুমন ওরফে বাবু, মিলন, কামাল, বিপ্লব, শেখ শাহাদাৎ হোসেন ওরফে রাজু, আসাদুজ্জামান ওরফে টিটু ওরফে ছোট টিটু ওরফে টিকলু, একরাম হোসেন ও রফিকুল ইসলাম মিল্টন ওরফে রফিক। উল্লিখিত আসামিদের মধ্যে তিনজন পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। 

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা