• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২৩ ১৪২৯

  • || ০৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

আজকের খুলনা

বাগেরহাটে নতুন ১৬৩টি প্রত্নস্থান শনাক্ত

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২০ জুন ২০২২  

বাগেরহাটে হযরত খানজাহান (রহ.) এর আমলসহ নতুন করে আরো ১৬৩টি প্রত্নস্থান (সাইট) শনাক্ত হয়েছে। বাগেরহাটের সদর উপজেলার ১০ ইউনিয়ন ও বাগেরহাট পৌর এলাকায় ১৮৪টি গ্রামে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর বিগত কয়েক মাসে প্রত্নতাত্তিক জরিপ করে এসব প্রত্নতাত্বিক স্থাপনা শনাক্ত করেছে। নতুন এসব গুরুত্বপূর্ণ প্রত্নতাত্তিক নিদর্শন রক্ষায় সরকার গুরুত্ব দেবে বলে জানিয়েছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। 

প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের খুলনা ও বরিশাল বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালত আফরোজা খান মিতা রবিবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ১৫শ শতকে হযরত খানজাহান (রহ.) এর নির্মিত ইউনেস্কো ঘোষিত ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইড ষাটগম্বুজ মসজিদসহ বর্তমানে হযরত খানজাহান মাজার, খানজাহান নির্মিত ইটের প্রাচীন সড়ক, চুনখোলা মসজিদ, সিঙ্গাইর, রণবিজয়পুর দরিয়া খাঁ, নয়গম্বুজ, দশগম্বুজ মসজিদসহ ১৭টি পুরাকীর্তি সংরক্ষন করছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। এছাড়াও ১৫শ শতকে খানজাহানের নির্মিত এমন আরও অসংখ্য স্থাপনা ও নিদর্শন ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বাগেরহাটে।

১৯৮৩ সালে হযরত খানজাহানের এসব স্থাপনাকে ইউনেস্কো ঐতিহাসিক মসজিদের শহর বাগেরহাট' হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইড (বিশ্ব ঐতিহ্য ) স্থান হিসাবে তালিকাভূক্ত করে। বিগত কয়েক মাসে প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ করে বাগেরহাটের সদর উপজেলার ১০ ইউনিয়ন ও বাগেরহাট পৌর এলাকার ১৮৪টি গ্রামে এই জরিপ কাজ পরিচালনা করে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের জরিপ কালে সব থেকে বেশী প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা শনাক্ত হয়েছে ষাটগম্বুজ ইউনিয়নে ৭৩টি,  কাড়াপাড়া ইউনিয়নে ৩৮টি ও বাগেরহাট পৌর এলাকায় ১৫টি।
এর বাইরে থাকা অন্য ৩৭টি প্রত্নস্থান বাগেরহাট সদর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে। হযরত খানজাহানের নির্মিত ১৭টি এখন বাগেরহাটের সদর উপজেলার মধ্যে মোট ১৮০টি পত্নসাইট সনাক্ত হলো। নতুন সনাক্ত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ এসব নিদর্শনের মধ্যে ১৫শ শতকে হযরত খানজাহান (রহ.) এর নির্মিত না অন্য সময়ের তা খনন ও আরো পরিক্ষা-নিরিক্ষার পর নিশ্চিত হয়া যাবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা