• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২৩ ১৪২৯

  • || ০৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

আজকের খুলনা

খুলনা থেকে ইজিপিপির ৩ কোটি টাকা ফেরত যাচ্ছে

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১৭ জুন ২০২২  

খুলনার ডুমুরিয়া ও পাইকগাছা উপজেলা থেকে ৩ কোটিরও বেশি টাকা ফেরত যাচ্ছে। অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি, ৪০ দিনের কর্মসূচি) প্রকল্পের ২য় পর্যায়ের কাজ সময়মত শেষ করতে ব্যর্থ হওয়ায় উল্লিখিত অর্থ ফেরত যাচ্ছে বলে সূত্র জানিয়েছে।  

ডুমুরিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর থেকে গত ৫ মে ইজিপিপি অর্থাৎ ৪০ দিনের কর্মসূচির দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ শুরু করার চিঠি দেওয়া হয়। ওই দিনই উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তর থেকে ১০ মের মধ্যে প্রকল্প গ্রহণ করে তালিকা দেওয়ার জন্য ইউপি চেয়ারম্যানদের চিঠি দেওয়া হয়। উপজেলা কমিটির সভায় ৬৪টি প্রকল্প অনুমোদন করে কাজ শুরু করার প্রস্তাব পাঠানো হয় জেলায় ১৭ মে। সে অনুযায়ী ২৪ মে থেকে কাজ শুরু করা হয়। 

এদিকে অধিদপ্তর থেকে চিঠি দেওয়া হয় ৮ জুনের মধ্যে ৪০ দিনের কর্মসূচির কাজ শেষ করতে হবে। ২৪ মে থেকে ৮ জুন মাত্র ১২ দিন কাজ হচ্ছে। এতে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত ২ কোটি ৭৪ লাখ ৮৮ হাজার টাকার মধ্যে মাত্র ৮২ লাখ ৪৬ হাজার ৪০০ টাকা পাচ্ছে শ্রমিকরা। আর ফেরত যাচ্ছে ১ কোটি ৯২ লাখ ৪১ হাজার ৬০০ টাকা।  
তবে একটি দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তরের সকল অফিসার ৪০ দিনের কর্মসূচির কাজে আগে থেকে অনীহা দেখান। তারা কাবিখা-টিআর আর ব্রিজ নির্মাণের কাজে বেশি তদারকি করেন। যে কারণে গরিবের এ প্রকল্প বাস্তবায়নে তাদের তেমন আগ্রহ নেই। 

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আশরাফ হোসেন বলেন, ইউনিয়ন থেকে রেজুলেশনসহ প্রকল্পের নামের তালিকা কোনো বারই সময়মত পাওয়া যায় না। যে কারণে কাজ শুরু করতে বিলম্ব হয়। 

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন অধিকাংশ চেয়ারম্যান। বেশ কয়েকজন চেয়ারম্যান বলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর শুধু না, যে কোনো দপ্তর থেকে সময়মত কাজ করার তাগিদ দেওয়া হয় না। মাত্র ১২ দিন কাজ হয়েছে কিন্তু চেয়ারম্যানদের ১৫ দিনের বিল করার কথা বলা হয়েছে।

প্রকল্পের তদারকিতে নিয়োজিত সহকারী প্রকৌশলী মো. রাসেল আহম্মেদ বলেন, ৩ দিন বেশি কাজ করে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। সরেজমিন দেখা গেছে, ১২৬টি ওয়ার্ডের সিংহভাগ জায়গায় বাড়তি ৩ দিনের কাজ হয়নি। 

মোক্তার হোসেন নামে এক ইউপি সদস্য বলেন, কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণে কোনো বারই ৪০ দিন কাজ করা সম্ভব হয় না। তবে এবার মাত্র ১২ দিন কাজ হওয়ায় শ্রমিকসহ সকলেই হতাশ হয়েছে। 

চলতি বছর ডুমুরিয়ার ১৪টি ইউনিয়নে ১ হাজার ৭১৮ জন শ্রমিক দিয়ে ৪০ দিনের কাজ শুরু হয়। বরাদ্দ ২ কোটি ৭৪ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। কাজ হয়নি ২৮ দিন। টাকা ফেরত যাওয়ার কথা ১ কোটি ৯২ লাখ ৪১ হাজার ৬০০ টাকা। এর আগে গত বছর ৫ দিন কাজ কম হওয়ায় ২৬ লাখ টাকা ফেরত যায়।

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে না পারায় খুলনার পাইকগাছা থেকেও ফেরৎ যাচ্ছে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) প্রকল্পের ১ কোটি ১৩ লাখ ৫২ হাজার টাকা। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পাইকগাছা উপজেলায় গত ৮ মে ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) প্রকল্পের ২য় পর্যায়ের ২ কোটি ২৭ লাখ ৪ হাজার টাকা বরাদ্দ আসে।

উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে যথাক্রমে ১নং হরিঢালীতে ১০৭ জন, ২নং কপিলমুনিতে ১৭১ জন, ৩নং লতায় ১২১ জন, ৪নং দেলুটিতে ১৪৫ জন, ৫নং সোলাদানাতে ১৬০ জন, ৬নং লস্করে ১৪০ জন, ৭নং গদাইপুরে ১০৯ জন, ৮নং রাড়ুলীতে ১২৫ জন, ৯নং চাঁদখালীতে ১৯৩ জন এবং ১০নং গড়ইখালীতে ১৪৮ জন মিলিয়ে সর্বমোট ১৪১৯ জন হতদরিদ্র ব্যক্তি জনপ্রতি দৈনিক ৪০০ টাকা মজুরিতে গত ১৪ মে থেকে ৮ জুন পর্যন্ত কাজ করেন। সরকারি ছুটি বাদে তারা ২০ দিনের বিল পাবেন। তবে এ মেয়াদে ৮ জুন শেষ হওয়ায় বাকি ২০ দিন কাজ করতে পারছেন না তারা। ফলে তাদের অনুকূলে আসা বরাদ্দের ১ কোটি ১৩ লাখ ৫২ হাজার টাকা ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

ভুক্তভোগী শ্রমিকরা জানান, করোনা পরবর্তী চলতি মৌসুমে এলাকায় কোনো কাজ নেই। তার উপর দ্রব্যমূল্যের ক্রমবর্ধমান ঊর্ধ্বগতিতে সংসার চালাতে নাভিশ্বাস উঠেছে তাদের। অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) প্রকল্পের আওতায় ৪০ দিনের কাজকে সামনে রেখে কোন রকম বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখছিলেন তারা। কিন্তু মাঝ পথে মেয়াদ জটিলতায় তাদের টাকা ফেরত যাওয়ার খবরে হতাশা প্রকাশ করেছেন তারা। 

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, পাইকগাছা উপজেলায় অধিকাংশ মানুষ মৎস্য ও শ্রমজীবী। এর উপর বর্তমানে সুন্দরবন ও সাগরে মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। সব মিলিয়ে এ অঞ্চলের মানুষের হাতে দৃশ্যত কাজ নেই। এমন পরিস্থিতিতে ৪০ দিনের সম্পূর্ণ কাজ করতে পারলে কিছুটা হলেও স্বস্তি মিলতো তাদের। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর থেকে এক মাস আগে বরাদ্দ আসলে এই মুহুর্তে তাদের টাকাগুলো ফেরত যেত না।

এ ব্যাপারে পাইকগাছা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মো. ইমরুল কায়েস জানান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর থেকে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) প্রকল্পের আওতায় পাইকগাছায় ৪০ দিনের কাজের জন্য বিলম্বে ২ কোটি ২৭ লাখ ৪ হাজার টাকা বরাদ্দ আসে। এছাড়াও ৮ জুনের মধ্যে কাজ শেষ করে বিল না পাঠালে শ্রমিকরা টাকা পাবে না। অন্যদিকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মাত্র ২০ দিন কাজ করা সম্ভব হয়েছে। আর সে কারণে বাধ্যতামূলক বাকি ১ কোটি ১৩ লাখ ৫২ হাজার টাকা ফেরত পাঠাতে হচ্ছে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা