বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

২০১১ নম্বর কক্ষে হত্যা করা হয় ফাহাদকে

ঢাকা অফিস

আজকের খুলনা

প্রকাশিত : ০২:৩৬ পিএম, ৭ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে শের-ই বাংলা হলের ২০১১ নং কক্ষ হত্যা করা হয়। কক্ষটি থেকে হত্যার বিভিন্ন আলামত জব্দ করা হয়েছে।

পরে ফাহাদের মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর তার লাশ হলের নিচ তলায় একটি তোশকের ‍ওপর ফেলে রাখা হয়।

আবরার ফাহাদ শের-ই বাংলা হলের ১০১১ নং কক্ষে থাকতেন।

ফাহাদের সহপাঠীরা জানিয়েছেন, রাত ৮টার দিকে শের-ই বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে কয়েকজন ফাহাদকে ডেকে নিয়ে যায়। এর পর রাত ২টা পর্যন্ত তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তাদের ধারণা, ফাহাদকে ২০১১ নম্বর রুমে নিয়ে পেটানো হয়। এরপর তারা ফাহাদের লাশ হলের নিচে দেখতে পান।

এদিকে হলের যে কক্ষে (২০১১) ফাহাদকে হত্যা করা হয় সেই কক্ষের ছাত্রদের আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তারা সবাই গা ঢাকা দিয়েছেন।

ফাহাদের এক সহপাঠী বলেন, যারা ফাহাদকে ডেকে নিয়ে যায় তাদের আমরা চিনি। কিন্তু এ মুহূর্তে তাদের নাম বলতে চাচ্ছি না।

পুলিশ জানিয়েছে, রোববার দিনগত রাত ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরেবাংলা হলের নিচতলা থেকে আবরার ফাহাদের লাশ উদ্ধার করা। ধারণা করা হচ্ছে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।