• বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ১০ ১৪৩১

  • || ১৭ মুহররম ১৪৪৬

আজকের খুলনা

আওয়ামী লীগের সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২৪  

পঁচাত্তর বছরে আওয়ামী লীগ। যেকোনো রাজনৈতিক দলের ক্ষেত্রে নিঃসন্দেহে বড় মাইলফলক। দীর্ঘ এই পথপরিক্রমায় আওয়ামী লীগের প্রধান প্রধান অর্জন কী বলে মনে করেন?
হারুন-অর-রশিদ: উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন, বৃহৎ, গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ। পাকিস্তান রাষ্ট্রে বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করার জন্য আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা হয়নি।
বাঙালির জাতীয় মুক্তির আন্দোলন, সংগ্রাম ও স্বপ্ন, তা পূরণের লক্ষ্য নিয়েই ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগের যাত্রা শুরু হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ষাটের দশকে বাঙালির জাতীয় মুক্তির মঞ্চে পরিণত হয়।

বলা চলে, সমগ্র বাঙালি জাতি আওয়ামী লীগের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হয়, যা ১৯৭০ সালের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে তার প্রকাশ ঘটে। আওয়ামী লীগের ৭৫ বছরের যে পথচলা, এর মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন হলো বাঙালির জন্য একটা স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা।

আওয়ামী লীগের যদি আর কোনো অর্জন না–ও থাকে, শুধু এই একটা অর্জনের কারণে বাঙালি জাতির ইতিহাসে দলটির স্থায়ী অবস্থান থাকবে।

স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধুর সরকার মাত্র সাড়ে তিন বছর যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুনর্বাসন ও পুনর্গঠনের সময় পেয়েছিল। এই সাড়ে তিন বছরে আমাদের সমাজ, রাজনীতি, প্রশাসন, রাষ্ট্রব্যবস্থার এমন কোনো স্থান নেই, যেখানে প্রতিষ্ঠানকাঠামো রচনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেনি।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে সপরিবার নির্মমভাবে যদি হত্যা না করা হতো, বিশ্বে অনেক আগেই উন্নত, সমৃদ্ধ, গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা লাভ করত।

১৫ আগস্ট ও ৩ নভেম্বরের হত্যাকাণ্ড যারা সংঘটিত করেছিল, তাদের লক্ষ্য ছিল সদ্য জন্ম নেওয়া অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রটিকে আবার পাকিস্তানি ধারায় ফিরিয়ে নেওয়া এবং আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করে দেওয়া।

বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীরা দম্ভ করে বলেছিল, আওয়ামী লীগ আর ক্ষমতায় আসতে পারবে না। কিন্তু তাদের সেই দম্ভোক্তিকে মিথ্যা প্রমাণিত করে ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে প্রমাণ করেছিল ইতিহাসের গতিকে পেছনের দিকে নিয়ে যাওয়া যায় না।

এরপর ২০০৯ থেকে আজ পর্যন্ত পরপর চার মেয়াদে সরকার পরিচালনা করছে আওয়ামী লীগ। বাংলাদেশ একসময় বৈদেশিক সাহায্যনির্ভর দেশ ছিল।

কিন্তু আজকে ভারত বলি, চীন বলি, যুক্তরাষ্ট্র বলি আর ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলি, সবাই কিন্তু বাংলাদেশকে হিসাবে নেয়।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা