• বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আজকের খুলনা

আদালতে স্বীকারোক্তি

রূপসায় স্কুলছাত্রীকে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০২২  

রূপসা উপজেলার ঘাটভোগ ইউনিয়নের স্কুলছাত্রী মীম খাতুনকে হত্যা করা হয় পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে। হত্যাকান্ডের সাথে সংশ্লিষ্ট আসামি প্রেমিক হোসাইন এবং রবিউল ইসলাম শেখ আদালতকে ১৬৪ ধারায় এ জবানবন্দি প্রদান করেছে।

পুলিশ জানায়, গত ২২ জুন সন্ধ্যায় বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমুল কবিরের আদালতে পুলিশের হাতে গ্রেফতার আসামিদ্বয় এ জবানবন্দি প্রদান করেছে। তারা জবানবন্দিতে ঘটনার সাথে নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে এবং ঘটনার মূল নায়কের নামও তারা জবানবন্দিতে উলে­খ করেছে। কিন্তু হত্যাকান্ডের কারণ সম্পর্কে এখনও আসামিরা মুখ খুলছে না। তবে পুলিশ বলছে হত্যাকারীদের কোন গোপন রহস্য মীম জানতো অথবা কোন গোপন বিষয় দেখে ফেলেছিলো বলে মীমকে এভাবে হত্যা করে লাশ গুম করার চেষ্টা করা হয়েছিল। মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই দীপক কুমার বিশ্বাস জানান, মামলার অন্যতম আসামি রফিক মোল­াকে ঘটনার পর পুলিশ আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। ঘটনার সাথে রফিক মোল­া এবং কাইয়ুম শেখের কতটা সম্পৃক্ততা আছে তার রহস্য উদঘাটনের জন্য উক্ত আসামিদ্বয়কে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। 

থানার ওসি সরদার মোর্শারফ হোসেন জানান, ঘটনার পর লাশ উদ্ধার হলে তাৎক্ষণিক ভাবে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এজাহারভুক্ত ৩ আসামিসহ পুলিশের তদন্তে আসা অন্যতম আসামি রফিক মোল­াকেও আটক করা হয়েছিলো। রফিক মোল­াকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে হত্যাকান্ডের কারণ এবং হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের শনাক্ত করা সম্ভব হবে বলে তিনি জানান। রফিক মোল­ার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলাসহ এলাকায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে জানা গেছে। উলে­খ্য গত ১৮ জুন সন্ধ্যায় গোয়ালবাড়ির চর গ্রামের সিরাজুল ইসলাম ওরফে মন্টু ফকিরের কন্যা আনন্দ নগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে দুষ্কৃতকারীরা পাশবিক নির্যাতন করে বাড়ি থেকে মাত্র ৩শ’ গজ দূরে একটি জঙ্গলের গর্তে ফেলে রাখে। পুলিশ ২০ জুন লাশ উদ্ধার করে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা