• বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৪

আজকের খুলনা

কয়রায় ট্রিপল মার্ডারে পুলিশ হেফাজতে ৭ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৮ জানুয়ারি ২০২২  

খুলনার কয়রায় ট্রিপল মার্ডারের মামলায় ৭ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তারা হলেন, উপজেলার বামিয়া গ্রামের আবু বকর গাজীর দুই ছেলে পল্লী চিকিৎসক সাইফুল্লাহ(৩৫) ও শামীম(৩৮), মৃত নুরমান গাজীর ছেলে আব্দুল হক (৬০) ও তার স্ত্রী তাসলিমা, আরশাদ সানার ছেলে মোস্তফা(৪০), আলী গাজীর ছেলে আল আমিন(৩৫) এবং আব্দুর রশিদ (২৬)। ঘটনার পর থেকে আব্দুল মাজেদ গাজীর ছেলে আব্দুর রশিদ(২৬) পলাতক ছিলেন।

বামিয়া গ্রামের আবু বকর গাজী জানান, শুক্রবার (৭ জানুয়ারী) রাত ১০টার দিকে তাদের বাড়িতে পুলিশ এসে তাকে সহ তার দুই ছেলেকে আমাদী পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে আব্দুল ওহাব ও তার স্ত্রী, মোস্তফা দোকানদার, আল আমিন এবং আসলামকে দেখতে পান। একপর্যায়ে রাত আড়াইটার দিকে পুলিশের গাড়ীতে তাকে ও আসলামকে নিজ বাড়িতে পৌছে দেয়।

স্থানীয় একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানা যায়, শুক্রবার রাত আটটার দিকে যশোর থেকে আব্দুর রশিদকে পুলিশ আটক করে। পরে তাদের এলাকা থেকে ৭ থেকে ৮ জনকে পুলিশ সাথে করে আমাদীর দিকে নিয়ে যায়। তবে বর্তমানে কোথায় রাখা হয়েছে সেটা তারা বলতে পারেননি।

আমাদী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পুলিশ পরিদর্শক ইব্রাহিম বলেন, ‘রাতে ঊর্ধ্বতন স্যাররা ফাঁড়িতে কয়েকজনকে নিয়ে আসেন এবং কিছুক্ষণ পরে সাথে নিয়ে চলে যান।’ তিনি এর থেকে বেশি কিছু বলতে রাজি হননি।

এ ব্যাপারে খুলনা জেলা ডিবি’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উজ্জ্বল কুমার দত্ত খুলনা গেজেটকে জানান, কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

খুলনার সহকারি পুলিশ সুপার (ডি-সার্কেল) মোঃ সাইফুল ইসলাম খুলনা গেজেটকে জানান, নতুন করে কাউকে আটক করা হয়নি। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে আমরা ক্লু উদ্ধারে বিভিন্ন এঙ্গেল থেকে বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। ক্লু পেলেই আপনাদের জানানো হবে।

উল্লেখ্য, কয়রার বাগালী ইউনিয়ন পরিষদের পাশে বসবাসকারী মৃত আব্দুল মাজেদ গাজীর পুকুরে মঙ্গলবার ( ২৬ অক্টোবর) সকালে লাশ ভাসতে দেখে এলাকাবাসি পুলিশকে জানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে। নিহতদের শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। সোমবার রাতের কোন এক সময় তাদেরকে হত্যা করা হয় বলে পুলিশ ধারণা করে।

নিহতরা হলেন, বামিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল মাজেদ গাজীর পুত্র হাবিবুল্লাহ গাজী (৩৩), তার স্ত্রী বিউটি খাতুন (২৫) ও একমাত্র কন্যা হাবিবা খাতুন টুনি (১৩)। হাবিবুর পেশায় দিনমজুর, তার স্ত্রী গৃহিনী ও একমাত্র মেয়ে হাবিবা খাতুুন টুনি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা