• সোমবার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ১২ ১৪২৮

  • || ১৯ সফর ১৪৪৩

আজকের খুলনা

ভৈরব সেতু নির্মাণে রেলওয়ের ৭ একর জমি অধিগ্রহণের প্রস্তাব

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ভৈরব সেতু নির্মাণের জন্য খুলনা সড়ক বিভাগের নগরীর মুহসীন মোড় থেকে রেলিগেট পর্যন্ত বাংলাদেশ রেলওয়ের ৭ দশমিক ১১৩৬ একর/ ২ দশমিক ৮৮ হেক্টর ভূমি প্রয়োজন। সেতু বাস্তবায়নকারী সংস্থা খুলনা সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আনিসুজ্জামান মাসুদ ভৈরব ব্রিজ নির্মাণের জন্য উল্লেখিত স্থানের অধিগ্রহণের জন্য প্রস্তাবিত ভূমির দাগগুলো বাংলাদেশ রেলওয়ের রেকর্ডীয় মালিকানাধীন ভূমি হওয়ায় নতুন করে ইজারা/ নবায়ন না দেওয়াসহ ইতিপূর্বের সকল ইজারা বাতিল, ব্যক্তি মালিকানাধীন পাকা/সেমিপাকা স্থাপনা অপসারণ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রস্তাবিত ভূমির দাগ সূচীর কপিসহ গত ১৮ মে ২০২১ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনের ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তাকে বিশেষভাবে অনুরোধ করে চিঠি প্রদান করেন। যার স্মারক নং- খুসবি ৪০৮৬।

সওজ এর নির্বাহী প্রকৌশলীর অনুরোধের পত্রের পরিপ্রেক্ষিতে আজ ৫ সেপ্টেম্বর (রবিবার) বেলা ১২ টায় রেলওয়ের পশ্চিম অঞ্চলের বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা ও রেলওয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নূরুজ্জামান মহসিন মোড় থেকে রেলিগেট পর্যন্ত ভৈরব ব্রিজ তৈরীর জন্য রেলওয়ের জমি অধিগ্রহণের জন্য প্রস্তাবিত ভূমি পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনা সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আনিসুজ্জামান মাসুদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ডঃ মসিউর রহমান এর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা এম এ রিয়াজ কচি ও মোঃ হাফিজুর রহমান, ভৈরব সেতুর প্রজেক্ট ম্যানেজার প্রকৌশলী অসীত কুমার অধিকারী, সড়ক বিভাগ-২ (সওজ) এর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ বেলায়েত হোসেন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ রাশিদুর রেজা, বাংলাদেশ রেলওয়ে কাচারী -১৮ এর ফিল্ড কানুনগো মোঃ মনোয়ারুল ইসলাম, সার্ভেয়ার মোঃ আবুবকর সিদ্দীকি, সওজ এর সার্ভেয়ার মোঃ নাইমুর ইসলাম প্রমুখ।

দিঘলিয়া (রেলিগেট)-আড়ুয়া-গাজীরহাট-তেরখাদা সড়কের (জেড-৭০৪০)খুলনা সড়কাংশে এক কিলোমিটার এ ভৈরব ব্রিজ নির্মাণের লক্ষে খুলনা জেলার দিঘলিয়া উপজেলার অন্তর্গত ০৪ নং মহেশ্বরপাশা, ১৩ নং দেবনগর ও ১৪ নং দিঘলিয়া মৌজার সর্বমোট ১৭ দশমিক ৪৯ একর/৭ দশমিক০৮ হেক্টর ভূমি অধিগ্রহণ প্রয়োজন হবে। এর মধ্যে ০৪ নং মহেশ্বরপাশা মৌজার ৭ দশমিক ১১৩৬ একর/২.৮৮ হেক্টর ভূমি বাংলাদেশ রেলওয়ের।

এদিকে মুহসিন মোড় থেকে নগরঘাট পর্যন্ত ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশ রেলওয়ের কাছ থেকে জমি ইজারা নিয়ে বহুতল ভবন নির্মাণ করে ভাড়া দেওয়াসহ ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠান, দোকানঘর নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করে আসছে। এ ব্যবসায়ীদের সংগঠনের ব্যক্তিবর্গ ভৈরব সেতুর নির্মাণ কাজ বাধাগ্রস্ত করছে এই মর্মে একটি অভিযোগপত্র গত ২৯ আগষ্ট খুলনা সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আনিসুজ্জামান মাসুদ স্বাক্ষরিত চিঠি প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ডঃ মসিউর রহমান, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, কেসিসি’র মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সালাহউদ্দিন, খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মুর্শেদী, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার, পুলিশ কমিশনার, খুলনা মেট্রোপলিটন, খুলনা রেঞ্জের, জেলা প্রশাসক, রেলওয়ের পশ্চিম অঞ্চলের ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা, খুলনা পুলিশ সুপারসহ, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার দপ্তরে পত্র প্রেরণ করেন। যার স্বারক নং খুসবি ৬১৮।

পত্রে তিনি উল্লেখ করেন, প্রকৃতপক্ষে ইজারা চুক্তিতে কোন সরকারী সম্পত্তির মালিকানা নিশ্চত করে না। সরকার সরকারী উন্নয়ন কাজের স্বার্থে ইজারা চুক্তি বাতিল করতে পারে। উক্ত প্রকল্পের ডিপিপি প্রস্তুতির সময় বাংলাদেশ রেলওয়ের Horizontal এবং Vertical Clearnance নেওয়া হয়েছে। সুতরাং বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিকল্পনাধীন উন্নয়ন পরিকল্পনার জন্য এটা ভবিষ্যতে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না। ওই সকল ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সরকারের উন্নয়নের ধারা ব্যাহত করার জন্য শুধুমাত্র ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে Writ Petition No 5369 OF 2021 দায়ের করেন। সে মোতাবেক মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক গত ২৭ জুলাই আমার কার্যালয়ে উক্ত ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে জনগুরুত্বপূর্ণ সেতুটির স্থান পরিবর্তনের কোন সুযোগ নেই মর্মে বিষয়টি বুঝানো হয় এবং এ সংক্রান্ত রেজুলেশন সবাইকে অবগত করা হয়। বর্তমানে খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের মাধ্যমে ভৈরব সেতুর জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। এমতাবস্থায় সরকারি জনগুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নের স্বার্থে সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করাসহ প্রকল্পের কাজ ত্বরান্বিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেন তিনি।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা