ব্রেকিং:
করোনায় ৪ মাস পর সর্বনিম্ন মৃত্যু, শনাক্ত এক হাজার ৫৫৫ জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী প্রতি মাসে ২ কোটি টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দুর্নীতিবাজদের শাস্তি নিশ্চিতে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির বিদেশেও দেশের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করছে বিএনপি : কাদের
  • সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৫ ১৪২৮

  • || ১৩ সফর ১৪৪৩

আজকের খুলনা

সুখস্মৃতি নিয়ে বাড়ি ফিরলেন ৮ পুলিশ সদস্য

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২ আগস্ট ২০২১  

প্রতিটি বিদায় মানুষের জন্য কষ্টকর। আর দীর্ঘদিন চাকরি জীবনের শেষমুহূর্তে সহকর্মী ও কর্মস্থল ছেড়ে আসা বেদনাদায়ক হয়। তবে সেই মুহূর্তটুকু সুখকর করতে খুলনার পুলিশ সুপারের উদ্যোগকে মহতী এবং গর্বের বলে জানিয়েছেন অবসর নেওয়া পুলিশ সদস্যরা।

গেল দুদিনে খুলনা জেলা পুলিশের আটজন সদস্য অবসরে যান। অবসরে যাওয়ার দিন তাদের আনন্দঘন পরিবেশে বিদায়ের ব্যবস্থা করেন খুলনা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান। বিদায়বেলায় সম্মান পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যরা।

রোববার (০১ আগস্ট) অবসরে যাওয়া পুলিশ কনস্টেবল শেখ ইউসুফ আলী বলেন, বিদায়টা সকলের জন্য কষ্টের। সহকর্মী ও প্রিয় কর্মস্থল ছেড়ে আসার সময় খুবই খারাপ লাগে। কিন্তু খুলনা পুলিশ সুপার স্যার বিদায়টাকে আনন্দের করেছেন। এটা একটি মহান উদ্যোগ। বিদায়ের মুহূর্তে সুসজ্জিত গাড়িতে সম্মানের সঙ্গে বাড়ি পৌঁছে দিয়েছে। গাড়িবহরে বাড়ি যাওয়া এটা এক অন্যরকম অনুভূতি।

একই দিনে অবসরে যাওয়া পুলিশের এএসআই আব্দুল মতিন বলেন, শেষ কর্মদিবসে সম্মান প্রদান এটি একটি ভালো উদ্যোগ। আমার কাছে অনেক সম্মানের মনে হয়েছে।

এদিন শুধু পুলিশ কনস্টেবল শেখ ইউসুফ আলী আর এএসআই আব্দুল মতিন নয়, অবসরে গেছেন আরও ৫জন পুলিশ সদস্য। তারা হলেন, এএসআই লোয়ার হোসেন, এএসআই আনোয়ার হোসেন, কনস্টেবল তরফদার গোলাম মোস্তফা, কনস্টেবল গোলাম কিবরিয়া ও কনস্টেবল আলী আফজাল।

এক দিন আগে শনিবার জেলা পুলিশে কর্মরত নায়েক রবীন্দ্রনাথ সরকার অবসরগ্রহণ করেন। দীর্ঘ ২৭ বছর কর্মজীবনে শেষে সুসজ্জিত গাড়িতে বিদায় জানায় খুলনা জেলা পুলিশ।

পুলিশ সুপার মাহবুব হাসান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমাদের সঙ্গে কাজ করা পরিবারের সদস্যের বিদায়বেলা যেন সুখকর হয়, সেজন্যই এই উদ্যোগ। আজীবন একটা সুখস্মৃতি নিয়ে থাকবে, এটাই আমাদের চাওয়া। অবসরে যাওয়া মানুষটির বিদায় যেন আনন্দের এবং সুন্দর হোক এটাই প্রত্যাশা।

তিনি আরও বলেন, খুলনায় পুলিশ সুপার হিসেবে চলতি বছরের ১৮ মার্চ আমি যোগদান করি। এর পর থেকে ১ আগস্ট পর্যন্ত খুলনা জেলা পুলিশে কর্মরত ২৮ জন সদস্যকে সুসজ্জিত গাড়িতে করে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া ও সম্মান প্রদান করা হয়েছে। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা