• শুক্রবার   ১৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৪ ১৪২৯

  • || ২১ মুহররম ১৪৪৪

আজকের খুলনা

খুলনায় ৩৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্রর উৎপাদিত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৮ জুন ২০২২  

খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নতুন প্লান্টে উৎপাদিত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ হয়েছে। সোমবার (২৭ জুন) ন্যাশনাল লোড ডিসপাস সেন্টারকে (এনএলডিসি) ২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এর লোড সরবরাহের মাধ্যমে খুলনা ৩৩০ মেগাওয়াট ডুয়েল- ফুয়েল কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট বিদ্যুৎ উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করেছে। এই নতুন পাওয়ার প্লান্টটি তৈরি করতে খরচ হয়েছে ৩ হাজার ৯৭২ কোটি টাকা।

খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে ১২ দশমিক ৮ কিলোমিটার দূরে সাউথ গ্রিড এর সাথে ২৩০ কেভি আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবল এর মাধ্যমে এ পাওয়ার সঞ্চালন করা হয়, যা বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম বলে খুলনা গেজেটকে জানিয়েছেন নতুন এ প্লান্টের সহকারী প্রকৌশলী কাজী মাসুদ।

তিনি আরো জানান, সোমবার সকাল ৯ টা ৫২ মিনিটে জাতীয় গ্রীড এর সাথে সিক্রনাইজ (সমতা রক্ষা করা) হয়। একইদিন নতুন এ প্লান্ট থেকে সর্বোচ্চ ৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ লোডে উন্নীত করা হয়েছে। একইদিন সকাল ১০ টায় এনএলডিসি কে ২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এর লোড দেওয়ার পর সকাল ১০ টা ৪৮ মিনিটে আমেরিকার বিখ্যাত জেনারেল ইলেকট্রনিক্স (জি ই) কোম্পানীর বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলীরা প্রাথমিক পরীক্ষা শেষে গ্যাস টারবাইন জেনারেটর শাট ডাউন দেন।

উল্লেখ্য, জেনারেটর কুলিং এর জন্য হাইড্রোজেন গ্যাস জেনারেটরের মধ্যে ভর্তি করার জন্য উক্ত শাট ডাউন দেওয়া হয়। জেনারেটরে হাইড্রোজেন গ্যাস ভর্তির পর আগামীকাল (২৮ জুন) এবং পরশু (২৯ জুন) পুনরায় প্লান্টটি চালু করা হবে এবং বেইস লোডে আনুমানিক ২২০ মেগাওয়াট লোডে চলবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

২০১৯ সালের ২৭ আগস্ট গোয়ালপাড়ায় অবস্থিত খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অভ্যন্তরে প্রথম পাইলিং এর মাধ্যমে খুলনা ৩৩০ মেগাওয়াট ডুয়েল ফুয়েল কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট এর কার্যক্রম শুরু হয়। বর্তমান যুগে এটিই সবচেয়ে পরিবেশবান্ধব পাওয়ার প্লান্ট। নতুন এ পাওয়ার প্লান্টের ২ টা পার্ট রয়েছে। ১ম পার্ট গ্যাস টারবাইন এবং ২য় স্টিম্প পার্ট। পাওয়ার প্ল্যান্টের নির্গমন ফ্লু গ্যাস ( ৬৫০ ডিগ্রী সেলসিয়াস) যা পরিবেশের জন্য অনেক ক্ষতিকর। কিন্তু কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট (সিসিপিপি) প্লান্টের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত নির্গমন ফ্লু গ্যাস টারবাইনের ক্ষমতার অর্ধেক বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে। ফলে পরিবেশের কোন ক্ষতি হবে না।

২০১৫ সালের ৩১ মে ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র দীর্ঘ ৩১ বছর বিদ্যুৎ উৎপাদনের পর যান্ত্রিক ত্রুটির কারনে বন্ধ হয়ে যায়। এর পর থেকে খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে কোন বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়নি।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা