ব্রেকিং:
ফেসবুকে অবমাননাকর পোস্ট: সেই পরিতোষ সরকার গ্রেফতার সাম্প্রদায়িক অপশক্তির তৎপরতা প্রতিরোধের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৫ ১৪২৮

  • || ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আজকের খুলনা

শরীরে রোগ বাসা বাঁধার আগেই প্রতিরোধ করে ‘আতা’

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১২ অক্টোবর ২০২১  

অতি সুপরিচিত ফল আতা। পুষ্টিগুণে ভরপুর আতা শুধু মিষ্টতার জন্যই নয়, স্বাস্থ্যের জন্যও ভীষণ উপকারী। আতা শরীরের রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণুও ধংস করে। এছাড়াও কোষ্ঠকাঠিন্যর সমস্যায়, ক্ষুধামন্দা, ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে আতা দূর্দান্ত কার্যকরী।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আতা ভিটামিন ও মিনারেলসমৃদ্ধ ফল হওয়ায় এটি চোখের কর্নিয়া ও রেটিনাকে সুরক্ষিত রাখে। এই ফল দুই ধরনের হয়ে থাকে। লালচে ও সবুজ। লালচে আতায় ক্যালরি ও আয়রন বেশি থাকে।

আতার উপকারিতা-

 

১. আতায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং খনিজ রয়েছে। আতা নিয়মিত খেলে রোগ প্রতিরোধ শক্তি অনেকটাই বাড়ে।

২. কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় নিয়মিত আতা খেলে সেই সমস্যা কমতে পারে। বিশেষ করে ভারী খাবার খাওয়ার পরে আতা খেলে ধীরে ধীরে এই সমস্যা কমতে থাকে।

 

৩. পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আতার মধ্যে থাকা ভিটামিন বি৬ শ্বাসনালির প্রদাহ কমায়। তাই যারা নিয়মিত আতা খান, তাদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা অনেকটাই কমে।

৪. আতা খেলে হৃদ্‌রোগের ঝুঁকিও কমে এবং রক্তপ্রবাহ ঠিক রাখতে সাহায্য করে। আতা খাবারকে এনার্জিতে রূপান্তরিত করে। ফলে হাড়ের গঠন মজবুত হয়।

৫. আয়রনে পরিপূর্ণ এই ফলটি খেলে লোহিত রক্তকণিকা বাড়ে। এছাড়াও ডায়াবেটিস প্রতিরোধেও বড় ভূমিকা রয়েছে আতার।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা