• মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ১ ১৪৩১

  • || ০৮ মুহররম ১৪৪৬

আজকের খুলনা

আলোচিত এই ১০ সিরিজ দেখেছেন কি

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৮ জুলাই ২০২৪  

‘ট্রু ডিটেকটিভ: নাইট কান্ট্রি’
২০১৪ সালে মুক্তির পরই ব্যাপকভাবে আলোচনায় আসে এই অ্যানথোলজি ক্রাইম ড্রামা সিরিজটি। চলতি বছর মুক্তি পেয়েছে এটির চতুর্থ মৌসুম। এতে দেখা গেছে জুডি ফস্টার ও কালি রেইসকে। আলাস্কার গবেষণাকেন্দ্র থেকে হঠাৎই লাপাত্তা আট গবেষক। তাঁদের ‘উধাও রহস্যের’ খোঁজে নামেন তদন্তকারীরা। এরপর কী হয়, তা নিয়েই এগিয়েছে ইসা লোপেজের সিরিজটি।

এইচবিওর সিরিজটি মুক্তির পর থেকে প্রশংসিত হয়েছে। রটেন টমেটোজে সিরিজটির রেটিং ৯২ শতাংশ। টান টান চিত্রনাট্যের সঙ্গে তদন্তপ্রক্রিয়ার সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম বিষয়গুলো তুলে ধরা সিরিজটিকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে, মনে করেন সমালোচকেরা। এবারের মৌসুমে প্রধান চরিত্রে দেখানো হয়েছে নারী তদন্ত কর্মকর্তাকে। এটিও সিরিজটিতে ভিন্ন মাত্রা দিয়েছে।

‘শোগান’
হুলুতে মুক্তি পাওয়া এই ড্রামা সিরিজকে চলতি বছরের অন্যতম সেরা সিরিজ মনে করেন অনেক সমালোচক। ১০ পর্বের সিরিজটি নির্মিত হয়েছে ১৯৭৫ সালে প্রকাশিত জেমস ক্লেভেলের উপন্যাস অবলম্বনে। নির্মাণ, চিত্রনাট্য, ভিজ্যুয়াল, অভিনয় মিলিয়ে সিরিজটি এতটাই প্রশংসিত হয়েছে যে এর মধ্যেই এটির দ্বিতীয় ও তৃতীয় মৌসুমের কাজ শুরু হয়ে গেছে। সিরিজটিতে অভিনয় করেছেন হিরোয়কি সানাদা, কসমো জার্ভিস, আনা সাওয়াই প্রমুখ।

‘বেবি রেইন্ডার’
নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া এই ব্রিটিশ ব্ল্যাক কমেডি সিরিজ চলতি বছরের অন্যতম চর্চিত কাজ। ওয়েরোনিকা টোফিসকা ও জোসেফিন ব্ররনেবাচ পরিচালিত সিরিজটিতে অভিনয় করেছেন রিচার্ড গাড, জেসিকা গার্নিং প্রমুখ। সাত পর্বের সিরিজটিতে যেভাবে আবেগকে ঘিরে তৈরি হওয়া জটিলতা তুলে ধরেছেন নির্মাতা, সেটার তারিফ করেছেন সমালোচকেরা। চলতি বছর নেটফ্লিক্সের সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজের একটি এটি।

 

‘ফলআউট’
গ্রাহাম ওয়াগনারের এই পোস্ট অ্যাপোক্যালিপটিক ড্রামা সিরিজটি মুক্তি পায় অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে। এলা পারনেল, অ্যারন মোতেন, কাইল ম্যাকলানচান অভিনীত সিরিজটি আট পর্বের। গত এপ্রিলে মুক্তির পর ১৬ দিনে সিরিজটির ৬৫ মিলিয়ন ভিউ হয়। সিরিজটি নির্মিত হয়েছে ভিডিও গেমস অবলম্বনে। সমালোচকেরা বলছেন, পোস্ট অ্যাপোক্যালিপটিক সময়ের প্রেক্ষাপটে নির্মিত সিরিজটিতে দেখার সময় ‘জীবন্ত’ মনে হয়েছে, এটিই ‘ফলআউট’-এর সবচেয়ে বড় শক্তি।

‘রিপলি’
ক্রাইম, থ্রিলারের বাইরে নেটফ্লিক্সের এই সিরিজ চলতি বছরে বলা যায় চমকে দিয়েছে দর্শকদের। ৮ পর্বের সাদা–কালো সিরিজটি এরই মধ্যে দুটি পুরস্কার জিতেছে, মনোনয়ন পেয়েছে আরও কয়েকটিতে।

 

যাঁরা টান টান উত্তেজনার বাইরে একটু অন্য রকম গল্প দেখতে চান, তাঁদের জন্য এই সিরিজ। এর প্রধান তিন চরিত্রে অভিনয় করেছেন অ্যান্ড্রু স্কট, জনি ফ্লিন, ডাকোটা ফ্যানিং।

‘ওয়ান ডে’
সমালোচকদের কাছে সেভাবে পাত্তা না পেলেও ১৪ পর্বের মিনি সিরিজটি গত ফেব্রুয়ারিতে নেটফ্লিক্সে মুক্তির পর ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। মূলত তরুণেরা সিরিজটি পছন্দ করেন। ব্রিটিশ রোমান্টিক সিরিজটি তৈরি হয়েছে ২০০৯ সালে প্রকাশিত ডেভিড নিকোলসের উপন্যাস অবলম্বনে। ২০১১ সালে একই উপন্যাস অবলম্বনে চলচ্চিত্রও তৈরি হয়। সিরিজটির গল্প এমা ও ম্যাথুর দুই দশকের সম্পর্ক নিয়ে। এতে অভিনয় করেছেন আমবিকা মড ও লিও উডডল।

‘দ্য রেজিম’
বছর তিনেক আগে এইচবিওর সিরিজ ‘মেয়ার অব ইস্টটাউন’-এ হাজির হয়ে চমকে দিয়েছিলেন কেট উইন্সলেট। অভিনেত্রী এবার হাজির ‘দ্য রেজিম’ নিয়ে। স্টিফেন ফ্রেয়ার্স ও জেসিকা হবসের ছয় পর্বের সিরিজটিও মুক্তি পায় এইচবিওতে। এটি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম এইচবিও ম্যাক্সে দেখা যাচ্ছে।

 

রাজনৈতিক বিদ্রূপাত্মকধর্মী এ সিরিজে কেট উইন্সলেটকে দেখা গেছে মধ্য ইউরোপের একটি দেশের চ্যান্সেলর হিসেবে। কেট উইন্সলেটের পারফরম্যান্স, হাস্যরস—সব মিলিয়ে প্রশংসিত হয়েছে সিরিজটি।

 

‘থ্রি বডি প্রবলেম’
সায়েন্স ফিকশনধর্মী সিরিজ যাঁরা দেখতে পছন্দ করেন, তাঁদের এটা অবশ্যই দেখা উচিত—সিরিজটি নিয়ে বেশির ভাগ সমালোচকেরই মত ছিল এমন। মহাকাশ, বিজ্ঞান, রহস্য ও মানবজাতির ভবিষ্যৎ নিয়ে এই থ্রিলার ধারাবাহিক দর্শককে চিন্তা করতে বাধ্য করবে। আমরা মহাবিশ্বে একা নেই, আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলে ফল কী হতে পারে—সে প্রশ্নের উত্তর হয়তো মিলতে পারে। নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া আট পর্বের সিরিজটির নির্মাতা ডেভিড বেনিঅফ, ডি বি ওয়েসিস ও আলেক্সান্ডার উ। এতে অভিনয় করেছেন জোভান অ্যাডেপো, জন ব্র্যাডলি, রোজলিন্ড চাও প্রমুখ।

‘ক্রিমিনাল রেকর্ড’
অজ্ঞাতনামা এক ফোনের সূত্রে সামনে আসে পুরোনো এক খুনের মামলা। রহস্য সমাধানে দায়িত্ব পান দুই গোয়েন্দা কর্মকর্তা। একজন নবীন, আরেকজনের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা। শুরু হয় এক রুদ্ধশ্বাস যাত্রা। এমন গল্প নিয়ে অ্যাপল টিভি প্লাসের আট পর্বের সিরিজটিতে অভিনয় করেছেন পিটার ক্যাপালডি ও কাশ জাম্বো। পল রাটম্যানের এ সিরিজে যে প্রক্রিয়ায় জটিল রহস্যের সমাধান দেখানো হয়েছে, সেটার প্রশংসা করেছেন সমালোচকেরা। প্রধান ভূমিকায় দুই গোয়েন্দার অভিনয়ও পছন্দ করেছেন দর্শকেরা।

‘ইকো’
অনেক দিন পর একটি সুপারহিরো সিরিজ দর্শক-সমালোচকেরা পছন্দ করেছেন। মিনি সিরিজটি তৈরি হয়েছে মার্ভেল কমিকসের একই নামের চরিত্র অবলম্বনে। ডিজনি প্লাসে মুক্তি পাওয়া সিরিজটিতে মায়া লোপেজ ওরফে ইকো চরিত্রে অভিনয় করেছেন আলাকোয়া কক্স। পাঁচ পর্বের সিরিজটি অ্যাকশন ও নতুন ভঙ্গিতে গল্প বলার জন্য প্রশংসিত হয়েছে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা