• মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৪ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে এমন এলাকা লকডাউনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সব দলকে ঐক্যবদ্ধভাবে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান কাদেরের ইবাদত-উপাসনা ঘরে পালনের নির্দেশ আরো বাড়লো আক্রান্তের সংখ্যা, সর্বমোট ১২৩ করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ২১ মিলিয়ন পাউন্ড দেবে যুক্তরাজ্য ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি
৮৭

সেখানে বাচ্চারা শুধু খেলতেই যাবে : কনা

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯  

নিজের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে বেশ কিছু শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন সংগীতশিল্পী দিলশাদ নাহার কনা। অডিও এবং চলচ্চিত্র দুই ধারাতেই তিনি সফলতার স্বাক্ষর রাখছেন। বর্তমানে সিনেমার অন্যতম নির্ভরযোগ্য নারী কন্ঠশিল্পীতে পরিণত হয়েছেন তিনি। এর বাইরে জিঙ্গেলের কাজও প্রায় প্রতিদিনই করছেন কনা। পাশাপাশি কন্ঠ দিচ্ছেন বিজ্ঞাপনেও। আর সবচেয়ে বেশি ব্যস্ত সময় তিনি পার করছেন স্টেজে। দেশ-বিদেশের শো নিয়ে বছর জুড়ে ব্যস্ত থাকতে হয় তাকে। সব মিলিয়ে কি অবস্থা? কেমন কাটছে দিনকাল? কনা উত্তরে বলেন, অনেক ভালো আছি।

খুব ব্যস্ততার মধ্যে সময়টা কাটছে। এখনকার মূল ব্যস্ততা কি নিয়ে? কনা ঝটপট বলেন, এখন তো শো এর মৌসুম শুরু হয়ে গেছে। বিভিন্ন জায়গায় শো আয়োজন হচ্ছে। আমি এরইমধ্যে বেশ কিছু শো করেছি। সামনেও টানা স্টেজ নিয়েই ব্যস্ত থকতে হবে। স্টেজে গান করাটা আমি উপভোগ করি। কারণ এখানে সরাসরি শ্রোতাদের ভালোবাসা পাওয়া যায়। এছাড়াও রেকর্ডিংয়ে সময় দিচ্ছি। আর বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানের শুটিংয়েও অংশ নিতে হচ্ছে। সম্প্রতি ব্যবসায়ীর খাতায়ও নাম লিখিয়েছেন। সে সম্পর্কে জানতে চাই। কনা বলেন, আমি এবং আমার বন্ধুরা মিলে একটি কিডস প্লে জোন চালু করেছি। এর নাম হলো ‘প্লে­হাউজ’। মিরপুর ডিওএসএইচ শপিং কমপ্লেক্সের ১১ তলায় এটি অবস্থিত। আসলে এখনকার সময়ে দেখা যায় কোথাও খেতে যাচ্ছি সেখানে হয়তো বাচ্চাদের জন্য ছোট প্লে-জোন থাকে। কিন্তু আমরা যেটা করেছি সেখানে বাচ্চারা শুধু খেলতেই যাবে। যদিও পাশে একটা রেস্টুরেন্ট আছে যদি বাচ্চারা খেলাধুলা করার পর ক্ষুধার্ত হয়ে যায় সেখানে তারা খেতে পারবে। ঢাকাতেতো বাচ্চাদের জন্য সেভাবে কোনো পার্ক বা মাঠ নেই। এই কারণেই এই প্লে জোনটা চালু করা। অন্তত শিশুরা এখানে খেলা করে ভালো সময় কাটাতে পারবে। এবার ভিন্ন প্রসঙ্গে আসি। চলতি বছর প্রকাশিত গানগুলো থেকে সাড়া কেমন মিলছে? কনা বলেন, এ বছর বেশ কিছু গান প্রকাশ হয়েছে আমার। অডিও এবং চলচ্চিত্র-দুই ক্ষেত্রেই গান প্রকাশ হয়েছে। তবে কদিন আগেই প্রকাশিত ‘তুই কি আমার হবিরে’ গানটি থেকে দারুণ সাড়া পাচ্ছি। এটি চয়নিকা চৌধুরী পরিচালিত ‘বিশ্বসুন্দরী’ ছবির গান। আমি ও ইমরান গেয়েছি। কবির বকুলের কথায় এর সুর ও সংগীত করেছে ইমরান। আর সিনেমায় গানটিতে পারফর্ম করেছেন সিয়াম ও পরীমনি। এ গানটি প্রকাশের পর থেকেই অনেক শুভেচ্ছা পাচ্ছি। এমনকি আমাদের গুণী অভিনেত্রী চম্পা আপাও গানটিতে টিকটক করেছেন। আমি বিষয়টি নিয়ে খুবই এক্সাইটেড। কারণ আমার কন্ঠে চম্পা আপা ঠোঁট মেলাবেন সেটা ভাবনায় ছিলো না। বর্তমানে মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে? উত্তরে কনা বলেন, অবস্থা এখন মোটামুটি। তবে আমরা এখন ডিজিটালি গান প্রকাশে অভ্যস্ত হচ্ছি। এখন গান প্রকাশ ও শোনা সহজ। তাই শিল্পীদের পাশাপাশি শ্রোতাদের সচেতনতাও জরুরি। তবে আমার বিশ্বাস সস্তা কোনো কিছু সাময়িক জনপ্রিয় হতে পারে, কিন্তু বেশিদিন টিকে থাকতে পারে না। তাই আসলে ভালো গানের প্রতিই মনোযোগী হওয়া উচিত। আমি ব্যক্তিগতভাবে এখন বেছে বেছে কাজ করছি। কথা-সুর ও সংগীতের প্রতি নজর দেয়াটা খুব প্রয়োজন। আর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ ভিডিও প্রকাশ করা যেতে পারে। একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে আসি। সংসার কেমন চলছে? কনা হেসে বলেন, খুব ভালো। গহীন আমাকে খুব বোঝে। আমার সব কাজে সে উৎসাহ দেয়। আমাদের বোঝাপড়াটাও ভালো। সবাই দোয়া করবেন আমাদের জন্য।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
সাক্ষাৎকার বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর