• বুধবার   ২৮ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১৩ ১৪২৭

  • || ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আজকের খুলনা

সরকারের সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় সঙ্কট কাটল সৌদি প্রবাসীদের

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০  

আটকেপড়া সৌদি প্রবাসীদের আকামার মেয়াদ, ফ্লাইট ও টিকেট সমস্যা সমাধানের জন্য সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়ার পরও কিছু লোক টিকেট নিয়ে হাহাকার করছেন। বৃহস্পতিবারও গুটিকয়েক প্রবাসীকে হোটেল সোনারগাঁওয়ের সামনের সড়কে অবস্থান করতে দেখা গেছে। সরকারের আশ্বাসেও তাদেরকে নিবৃত্ত করা যাচ্ছে না। এ অবস্থায় ফ্লাইটের টিকেট না পেয়ে বিক্ষুব্ধ সৌদি প্রবাসীদের সড়ক অবরোধ ও মন্ত্রণালয় ঘেরাওয়ের নেপথ্যে তৃতীয় পক্ষের উস্কানি ছিল বলে আশঙ্কা করছে সরকার। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন নিজেও এ ধরনের ইঙ্গিত দেন। এ ছাড়া পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলমের ফেসবুক বার্তায়ও এমন ইঙ্গিত রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, রেমিটেন্স যোদ্ধাদের পক্ষে যিনি দরখাস্ত দিয়েছেন তিনি কিন্তু প্রবাসী না। তিনি এ দেশের লোক, রাজনীতি করেন, তিনি এটা দিয়েছেন। আমি তাই প্রবাসীদের বলব, কোন তৃতীয় পক্ষের প্ররোচনায় এ ধরনের কাজ করলে আপনাদেরই ক্ষতি হবে।

এদিকে বৃহস্পতিবারও বিমান ও সাউদিয়া এয়ারের সিডিউল এবং বাণিজ্যিক ফ্লাইট আরও বাড়ানো হয়েছে। চলতি সপ্তাহেই আরও অন্তত এ দুটি এয়ারের আটটি ফ্লাইট ঢাকা থেকে অপারেট করা হবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে মোমেন দৈনিক বলেছেন, আগামী ১ অক্টোবর থেকে প্রতিদিনই বিমান ও সাউদিয়ার বাণিজ্যিক ফ্লাইট ঢাকা থেকে আটকেপড়াদের নিয়ে যাবে। কাজেই টিকেটের সঙ্কট কিছৃুতেই হওয়ার কথা নয়। যারা টিকেটের কথা বলে রাস্তাঘাটে অবস্থান করছেন তাতে মূলত সৌদি আরবের কাছে আমাদের ভাবমূর্তিকেই ক্ষতিগ্রস্ত করছেন। এদেরকে সতর্ক হতে হবে। সৌদিতে ফিরে যাওয়ার জন্য চলমান টিকেট সঙ্কট নিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিযারও তার ভেরিফায়েড ফেসবুকে এক পোস্টে সৌদি প্রবাসীদের সমস্যা নিয়ে অগ্রগতির খবর জানানোর পাশাপাশি ‘ছাত্র অধিকার আন্দোলনের’ নাম উল্লেখ করেছেন। তিনি লিখেছেন, সৌদি আরবে চারদিন বর্ধিত ছুটি ছিল, আজকেই খুলেছে। সৌদি আরবের যারা খোঁজ রাখেন তাদের এটা জানা উচিত (কোন ছাত্র অধিকার আন্দোলন- এটা জানার কথা নয়)।

আরও দুটি ফ্লাইট বিমানের ॥ এদিকে রিটার্ন টিকেট নিয়ে বাংলাদেশে এসেও লকডাউনের কারণে সৌদি ফিরতে পারেননি অনেক প্রবাসী। তাদেরকে ফের সৌদি পাঠাতে আরও দুটি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। আগামী ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর বিমানের বিশেষ এই ফ্লাইট দুটি পরিচালনা করবে। এক বিজ্ঞপ্তিতে বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোকাব্বির হোসেন জানান, বাংলাদেশ বিমানের যেসব যাত্রী ১৮, ১৯ ও ২০ মার্চের জেদ্দা এবং ১৮ ও ১৯ মার্চের রিয়াদে বিমানের রিটার্ন কেটেছিলেন তাদের (যথাক্রমে) আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর (ঢাকা-জেদ্দা) ও ৩০ সেপ্টেম্বর (ঢাকা-রিয়াদ) বিশেষ ফ্লাইটে সৌদি আরব নিয়ে যাওয়া হবে। এর আগে বিমানের কয়েকটি বিশেষ ফ্লাইট সৌদি গেলেও সেখানে যাত্রী নেয়া হয়েছিল নিবন্ধন ও ‘আগে আসলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে। এবারই প্রথম রিটার্ন টিকেট কাটা যাত্রীদের অগ্রাধিকার দেয়া হলো। বিমান জানায়, এই ফ্লাইট দুটিতে বুকিংয়ের জন্য বিমান সেলস অফিসে টিকেট, পাসপোর্ট, সৌদি আরব নির্ধারিত এ্যাপস লিঙ্ক থেকে অনুমোদন ইত্যাদিসহ আগামী ২৫-২৬ সেপ্টেম্বর যোগাযোগের অনুরোধ করা যাছে। নতুন ফ্লাইট অনুমোদন সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে অন্য যাত্রীদেরও বুকিংয়ের জন্য অবহিত করা হবে। তবে অন্য তারিখের যাত্রীদের এখনই অযথা কাউন্টারে ভিড় না করতে অনুরোধ করছে বিমান। এছাড়া ১৬ ও ১৭ মার্চের জেদ্দা ও রিয়াদের বিমানের রিটার্ন টিকেটধারী যাত্রীদের জন্য বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২৬ সেপ্টেম্বর ঢাকা-জেদ্দা ও ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকা-রিয়াদে যাত্রীবাহী ফ্লাইট পরিচালনা করবে। ১৬ ও ১৭ মার্চের ফিরতি টিকেটধারী যাত্রীদের এই ফ্লাইটে বুকিংয়ের জন্য বিমান সেলস অফিসে টিকেট, পাসপোর্ট, সৌদি আরব নির্ধারিত এ্যাপস লিঙ্ক থেকে অনুমোদন ইত্যাদিসহ ২৪ সেপ্টেম্বর যোগাযোগ করতে হবে। অন্য যাত্রীদের এখনই অযথা কাউন্টারে ভিড় না করতে অনুরোধ করেছে বিমান।

এদিকে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, সৌদি এয়ারলাইন্স বিশেষ ফ্লাইটের পাশাপাশি নিয়মিত ফ্লাইটে যাত্রী নেয়া শুরু করেছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সও প্রবাসীদের সৌদিতে ফেরাতে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে। এ জন্য করোনা তা-বের মধ্যে সৌদিতে ফিরতে প্রবাসীদের মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধিসহ কিছু শর্ত। প্রত্যেককে অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দিষ্ট মোবাইল এ্যাপ্লিকেশন মোবাইলে ইনস্টল করতে হবে, যার জন্য লাগবে স্মার্ট ফোন। এ কারণে স্মার্ট ফোন ছাড়া সৌদিতে গেলে পড়তে হবে বিপত্তিতে, হতে পারে বড় অঙ্কের জরিমানা। বিমান, সাউদিয়া ও সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে সৌদি আরবে যেতে প্রবাসীদের কিছু শর্ত অনুসরণের কথা বলা হয়েছে। সাউদিয়া ও বিমান ঢাকা থেকে জেদ্দা এবং রিয়াদে যাত্রী পরিবহন করবে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে যাত্রীদের হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইটে যেতে হবে। সৌদির নিয়ম অনুসারে বৈধ ভিসাধারী যাত্রীরা সৌদি আরবের বিভিন্ন গন্তব্যে প্রবেশ করতে পারবেন। বিমানের ফ্লাইট ছাড়ার ৬ ঘণ্টা আগে যাত্রীদের স্মার্ট ফোনসহ বিমানবন্দরে উপস্থিত হতে হবে। যাত্রীদের অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডিসক্লেইমার ফরমে উল্লেখিত এ্যাপস ডাউনলোড করতে হবে। সব যাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছানোর ৮ ঘণ্টার মধ্যে ঞধঃধসধহ ধঢ়ঢ়-এর মাধ্যমে তাদের আবাসস্থলের অবস্থান জানাতে হবে। সৌদিতে পৌঁছানোর পর সাতদিন নিজের বাসায় সেলফ কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। সব যাত্রীকে কোভিড-১৯-এর উপসর্গগুলোর প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। কোন উপসর্গ দেখা গেলে তাৎক্ষণিকভাবে ৯৩৭-এ কল করতে হবে। প্রয়োজনে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র যেতে হবে। বিশেষ এ্যাপসের যাত্রীদের অবশ্যই প্রতিদিনের স্বাস্থ্য মূল্যায়ন করতে হবে। এ ছাড়া যাত্রীদের বোর্ড কার্ড পেতে আরও কিছু নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে, যা বাধ্যতামূলক। বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত পরীক্ষাগার থেকে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকতে হবে, যা কোনভাবেই সৌদি আরবে পৌঁছানোর আগে ৪৮ ঘণ্টার বেশি না হয়। যাত্রীদের কোভিড-১৯ নেগেটিভ টেস্ট ফলের ছয়টি কপি সঙ্গে রাখতে হবে। ৪৮ ঘণ্টার সময় গণনা শুরু হবে নমুনা সংগ্রহের সময় থেকে। যাত্রীদের সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জারিকৃত কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিয়ন্ত্রণ এবং পদক্ষেপগুলো মেনে সৌদি আরবে প্রবেশ করতে হবে। বিমানে বোর্ডিংয়ের পূর্বে যাত্রীদের অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডিসক্লেইমার ফরম পূরণ এবং স্বাক্ষর করতে হবে এবং সৌদি বিমানবন্দরে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে বিমানবন্দর স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রে পূরণকৃত ও স্বাক্ষরকৃত ফরমটি জমা দিতে হবে। নির্দেশাবলী অমান্য করার ফলে সিভিল এভিয়েশন আইনের ১৬৩ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বিশাল জরিমানা আরোপিত হবে। নিজ গৃহে সেলফ কোয়ারেন্টাইন থাকার সময় যাত্রীদের অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডিসক্লেইমার ফরমে উল্লেখিত পূর্ব সতর্কতামূলক পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করতে হবে।

সৌদি-ওমানের ফ্লাইট ১ অক্টোবর থেকে ॥ এদিকে সৌদি আরব ও ওমানগামী বাতিল হওয়া সব রুটের ফ্লাইট আগামী ১ অক্টোবর থেকে চালু হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন। এতে অপেক্ষারত প্রবাসীরা দেশ দুটিতে পৌঁছে কাজে যোগ দিতে পারবেন। পিসিআর টেস্টের রিপোর্ট থাকতে হবে এবং পৌঁছে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। বৃহস্পতিবার নিজ দফতরে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান মন্ত্রী। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরবে কাজে যোগদানের বিষয়ে যে উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয়েছিল, আমরা আশা করছি, তার সুষ্ঠু সমাধান হয়েছে। এরপরও আমরা বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি। প্রধানমন্ত্রী প্রবাসীদের সুযোগ-সুবিধা দেয়ার বিষয়ে আগ্রহী জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার প্রবাসীদের বিষয়ে বরাবরই আন্তরিক হয়ে কাজ করছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে এরই মধ্যে চতুর্থ দফায় আরও ২৪ দিন প্রবাসীদের আকামার মেয়াদ বাড়িয়েছে সৌদি সরকার। ফ্লাইট পরিচালনার জন্য বাংলাদেশকে ল্যান্ডিং পারমিশনও দেয়া হয়েছে। ফলে এরই মধ্যে যেসব প্রবাসী সৌদি থেকে রিটার্ন টিকেটে বাংলাদেশে এসে লকডাউনের কারণে আর ফিরতে পারেননি তারা যেতে পারবেন।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা