আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
চট্টগ্রামে তেলের ড্রাম বিস্ফোরণে দুই শিশু দগ্ধ পিরোজপুরে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু ঠাঁকুরগায়ে ঠান্ডাজনিত রোগে ৩ শিশুর মৃত্যু, হাসপাতালে শতাধিক শিশু বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৩০ টি কুকুর উপহার দিল ভারত এসএ গেমসে ভারোত্তোলন ৯৬ কেজি শ্রেণীতে স্বর্ণপদক জিতলেন জিয়ারুল ইসলাম এসএ গেমসে ভারোত্তলনে স্বর্ণ জিতলেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত খুলনায় বোমা বিস্ফোরণ : আইএস’র দায় স্বীকার

শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
সিদ্ধিরগঞ্জে ২৮ কেজি গাঁজাসহ এক জন আটক বরিশালে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আটক ১ আসন্ন মুজিব বর্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ডক্টর অব লজ’ ডিগ্রি প্রদান করবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি, আটক ২ মেহেরপুরে ৮ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি আটক
৪২

শিশুর জ্বর : কী করবেন, কী করবেন না

স্বাস্থ্য ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০১৯  

বাবা-মায়ের জন্য সন্তানের যেকোনো শারীরিক সমস্যাই অত্যন্ত চিন্তার বিষয় হয়ে দাড়ায়। বিশেষ করে বর্তমান সময়ে শিশুদের মধ্যে জ্বর দেখা দিলে অনেক বেশি চিন্তায় পড়তে হচ্ছে। একদিকে ডেঙ্গুর প্রকোপ, অন্যদিকে আবহাওয়ার পরিবর্তন- সবমিলিয়ে ভয়রে আরেক নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে জ্বর। আপনিও নিশ্চয় আপনার শিশুর স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তিত? শিশুর কপালে হাত রেখে হালকা গরম মনে হলেই থার্মোমিটারে চেক করছেন? কী করবেন শিশুর জ্বর এলে? 

সাধারণত, আমাদের শরীরে কোন সমস্যা দেখা দিলেই শরীরের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা সেটার জবাব দেয় জ্বরের মাধ্যমে। বর্তমান সময়ে এ নিয়ে একটু সতর্ক থাকতে এবং জানতে, চলুন, এক নজরে দেখে নেওয়া যাক সন্তানের জ্বরের সময় আপনার করণীয় সম্পর্কে।

কী করবেন?

আপনার সন্তানের জ্বর হলেই প্রথমে তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। বর্তমান সময়ে প্রথমেই এটা পরীক্ষা করা জরুরী যে, আপনার শিশুটি কোন গুরুত্বপূর্ণ শারীরিক সমস্যায় ভুগছে কিনা। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে ওষুধ সেবন করান।

ঘরের তাপমাত্রা স্বাভাবিক রাখুন। খেয়াল রাখুন যেন, ঘরের তাপমাত্রা খুব কম বা খুব বেশি না হয়ে যায়। এছাড়া, শিশুকে এসময় খুব হালকা ও আরামদায়ক কাপড় পরান। চেষ্টা করুন ঘরে আলো ও বাতাস আসার ব্যবস্থা করতে। যদি কোনকিছুতেই শিশুর গায়ের তাপমাত্রা না কমে, সেক্ষেত্রে তাকে গোসল করিয়ে দিন। তবে এক্ষেত্রে ঠাণ্ডা পানি নয়, ব্যবহার করুন ঈষদুষ্ণ পানি। 

খাবারের সাথে জ্বরের খুব ভালো সম্পর্ক আছে। আপনার শিশু হয়তো এসময় কিছুই খেতে চাইবে না। তবে তাকে একটু একটু করে বিরতি নিয়ে খাবার খাওয়ান। এতে করে তার শরীর জ্বরের জীবাণুর সাথে লড়াই করার শক্তি পাবে। চেষ্টা করুন শিশুকে যতটা বেশি সম্ভব তরল পানীয় পান করানোর। জ্বর মানেই শরীর থেকে প্রচুর পরিমাণ পানি বেরিয়ে যাওয়া। তরল খাবার ও পানীয় শরীরে প্রবেশ করলে এতে করে তার শরীর পানিশূন্য হয়ে যাবে না।

কী করবেন না?

সব ওষুধ যে সমানভাবে আপনার শিশুর শরীরে কাজ করবে তা কিন্তু নয়। তাও জ্বর এলেই তাকে অ্যাসপিরিন খাওয়াবেন না। এছাড়া, একইসাথে অনেকগুলো ওষুধ খাওয়ানো থেকে বিরত থাকুন। এতে করে আপনার শিশুর শরীর অতিরিক্ত চাপ অনুভব করবে না। চিকিৎসকের সাথে কথা বলে তারপর শিশুকে ওষুধ দিন। ঠান্ডার ওষুধ না জেনেই তাকে খাওয়াবেন না। এতে করে ভালো কিছু হওয়ার চাইতে ক্ষতি হতে পারে। আপনার শিশুকে ঠান্ডা পানিতে গোসল করাবেন না। যদি তার শরীর কেপে ওঠে, তাহলে তাকে ভারী ভারী কাপড় দিয়ে ঢেকে দেবেন না। হালকা এবং আরামদায়ক কাপড়েই তাকে থাকতে দিন। 

আমি কি আমার সন্তানকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাবো?

জ্বর মানেই কিন্তু সবসময় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়। তবে, বর্তমান পরিস্থিতিতে আপনি অবশ্যই আপনার শিশুকে পরীক্ষার জন্য চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যেতে পারেন। এছাড়াও কেয়াল রাখুন যে-

১। আপনার শিশুর জ্বর ১০৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি হয়ে গিয়েছে কিনা
২। তার জ্বর ৭২ ঘন্টার বেশি স্থায়ী হয়েছে কিনা
৩। জ্বরের সাথে সাথে কানে ব্যথা, গলা শুকিয়ে যাওয়া, মাথাব্যথা ও র‍্যাশ- ইত্যাদি দেখা দিয়েছে কিনা
৪। তাকে অসুস্থ ও নির্জীব মনে হচ্ছে কিনা
এই সমস্যাগুলো দেখা দিলে তাকে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। 

জ্বর মানেই ঘাবড়ে যাওয়ার মতো কিছু নয়। আপনার শিশুর শরীরে যদি জ্বর দেখা দেয় তাহলে তাকে একদিন অন্তত পর্যবেক্ষণে রাখুন। যদি জ্বর না কমে এবং ধীরে ধীরে বাড়তেই থাকে তাহলে ওষুধ দেওয়ার আগেই চিকিৎসকের সাথে কথা বলে নিন। সঠিক সময়ে ব্যবস্থা গ্রহন করলে আপনার শিশু খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা