• রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৮ শা'বান ১৪৪২

আজকের খুলনা

লাইসেন্সহীন মোটরসাইকেলে অপ্রাপ্তদের দাপট লাগামহীন

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৭ আগস্ট ২০২০  

নগরীর বয়রা এলাকায় বাস ও ইজিবাইক মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন নিহত ও দু’জন গুরুতর আহত হয়েছে। ইজিবাইক চালক মফিজ উদ্দিন (৪০) ঘটনাস্থলেই মারা যান। এছাড়া সোহেল ও চায়না নামের এক দম্পতি গুরুতর আহত হয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বয়রা পুলিশ লাইনের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় জনতা মোটরসাইকেল চালক ও এক আরহীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। শাহজালাল মাসুদ নামের ওই মোটরসাইকেল চালকের বয়স ১৭ বছর। তার কোন ড্রাইভিং লাইসেন্স ও গাড়ির কাগজপত্র ছিল না। অথচ অপ্রাপ্ত এই চালককে আটক করার পরও ছেড়ে দেওয়ায় পুলিশের দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান, বয়রায় সাংবাদিক বেলাল সড়ক দিয়ে হঠাৎ একটি মোটরসাইকেল দ্রুত প্রধান সড়কে উঠে আসে। এ সময় বয়রা বাজারের দিকে দিয়ে আসা একটি বাসের সামনে পড়ে যায়। দ্রুত বাসের চালক মোটরসাইকেল বাঁচাতে গিয়ে উল্টো সড়কে ঢুকে পড়ে। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ইজিবাইক চালক ও দুই যাত্রী গুরুতর জখম হয়। তাদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। পথিমধ্যে ইজিবাইক চালক মফিজ মারা যায়। আহত দুই যাত্রী স্বামী-স্ত্রী খালিশপুর চরের হাট এলাকার বাসিন্দা ও হোটেল কর্মচারী। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। অপরদিকে বাস দুর্ঘটনার সাথে সাথে বাসের চালক হেলপার পালিয়ে যায়। বাসটিকে (খুলনা মেট্রো ব-১১০১৩১) আটক করেছে পুলিশ।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় বাসিন্দা জাকির হোসেন জানান, শুধুমাত্র একটি মোটরসাইকেল ও চালককে বাঁচাতে গিয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটছে। উঠতি বয়সী এই যুবকের ভুলের কারণে তিনজন নিরপরাধ মানুষ মরতে বসেছে। এদের মোটরসাইকেলের কোন কাগজপত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্স পর্যন্ত নেই।
খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম জানান, বাসটি নতুন রাস্তার দিকে যাচ্ছিল। বয়রা এলাকায় পুলিশ লাইনের কাছাকাছি আসতেই বাসের চালক উল্টো সড়কে ঢুকে একটি ইজিবাইককে ধাক্কা দেয়। এতে ইজিবাইক চালক মফিজ মারা যায়। আর দুই যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। এ ঘটনায় অপ্রাপ্ত বয়স্ক এক মোটরসাইকেল চালক ও এক আরোহীকে আটক করার পর রাতে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। বাসের চালককে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ-কেএমপি’র উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া যানবাহন চলাচল রুখতে আমাদের নিয়মিত অভিযান অব্যাহত রয়েছে। জনবল সঙ্কট থাকায় বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় ট্রাফিকের দায়িত্ব দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তবে নিয়মিত পুলিশি নজরদারী চলছে। অবৈধ যানবাহন ও ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা