• বুধবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ১৪ ১৪২৬

  • || ০২ রজব ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
জ্বলছে দিল্লি, গুলিবিদ্ধ সাংবাদিকও! নিহত বেড়ে ১০ মিসরের সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক আর নেই নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের আগুনে দগ্ধ আটজনের মধ্যে পাঁচজনের মৃত্যু ১০৬ রানে জিম্বাবুয়েকে হারালো বাংলাদেশ, ম্যাচ সেরা মুশফিকুর রহিম ট্রাম্পের আসার পরেই রণক্ষেত্র দিল্লি: পুলিশসহ নিহত ৭, আহত শতাধিক মদিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৩ জন বাংলাদেশি নিহত টঙ্গীতে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় স্কুলছাত্র নিহত
৪৯

রাস্তা সংস্কারে ধীরগতি, জনদুর্ভোগ চরমে

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

কর্তৃপক্ষের নেই নজরদারি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের গাফিলতি পেরিয়ে গেছে সময় তবুও নেই কাজের অগ্রগতি দুর্ভোগ বাড়ছে। কুড়িগ্রামের চিলমারীর রাজারভিটা ব্রহ্মপুত্র নদের পাড় থেকে মণ্ডলপাড়া থানাহাট পুরাতন বাজার রাস্তা সংস্কার কাজে ঠিকাদারের সীমাহীন গাফিলতিতে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন হাজার হাজার এ পথের যাত্রীরা। 

দুর্ভোগে পড়েছেন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাগামী শতশত শিক্ষার্থী। রাস্তা সংস্কার কাজ নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলেও কাজ সম্পন্ন করতে পারেনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। রমনা ঘাট থেকে আসা রৌমারী, রাজীবপুর, ব্রহ্মপুত্র নদ দ্বারা বিচ্ছিন্ন উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন, রমনা, রাজারভিটা ও রাস্তার পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দারা এ পথ দিয়ে চিলমারী উপজেলা সদর হয়ে কুড়িগ্রাম জেলা সদরে যাতায়াত করে। 

জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়ায় চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ৩৯ লাখ ৩৪ হাজার ২৯০ টাকা ব্যয়ে সড়ক সংস্কার কাজের উদ্বোধন করা হয়। সংস্কার কাজ চলতি বছরের ২০ এপ্রিল শেষ করার কথা থাকলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ সম্পন্ন করতে পারেনি। 

উপরন্তু সড়কের কার্পেটিং তুলে ফেলায় জনদুর্ভোগ আরো বেড়েছে। 

সড়কের কার্পেটিং তুলে ফেলার পর কাজ থেমে গেছে। ফলে তুলে ফেলা কার্পেটিংয়ের উপর দিয়ে যান চলাচলে মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। সড়কটি বেহাল দশায় পরিণত হওয়ায় চিলমারী উপজেলাসহ রৌমারী ও রাজীবপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষকে পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাজ তত্ত্বাবধায়নকারী মিজানুর রহমান জানান, কার্পেটিংয়ের জন্য উপকরণ রাখার স্থান না পাওয়ায় কাজ শেষ করতে দেরি হচ্ছে। শুধু এই সড়কটি নয় উপজেলার বেশ কয়েকটির সড়কের কাজ শুরু হলেও কর্তৃপক্ষের নজরদারি না থাকায় সময়ের মধ্যে রাস্তার কাজ এবং সংস্কার শেষ না করায় মাছাবান্দা, পাত্রখাতা, সবুজপাড়া ছোটকুষ্টারীসহ বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ এখন চরমে। 

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী আজিজুর রহমান বলেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজ শেষ করতে তাগিদ দেয়া হয়েছে।

 

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
জনদূর্ভোগ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর