• বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৫ ১৪২৬

  • || ১৪ শা'বান ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর নামে গুজব ছড়ানোর দায়ে আটক ১ খুলনায় করোনা নিয়ে গুজব ছাড়ানোর অভিযোগে গ্রেফতার ১ মাজেদের মৃত্যুদণ্ড পরোয়ানা জারির আবেদন সাভারে ট্রাকচাপায় পোশাক শ্রমিক নিহত ফের বাড়ল হজযাত্রী নিবন্ধনের সময়সীমা খুলনা বিভাগের সঙ্গে রবিবার প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্স ত্রাণ কার্যক্রম মনিটরিংয়ের দায়িত্বে ৫৫ কর্মকর্তা
৮৯

মুজিববর্ষে নতুন ঘর পেয়ে খুশি কয়রার ৩৬ গৃহহীন পরিবার 

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২০  

প্রাকৃতিক দুর্যোগে নিজের বসত ঘরটি হারিয়ে প্রায় এক বছর ধরে অন্যের গৃহের বারান্দায় বসবাস করছিলেন সায়রা বেগম (৫০)। স্বামীর রেখে যাওয়া এক টুকরো ভিটে ছাড়া আর কোন জমি নাই তার। ঝিয়ের কাজ করে দু’বেলা মুখের আহার জোটাতে পারলেও দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত ঘর মেরামতের সাধ্য ছিল না। অবশেষে সরকারিভাবে দুই কক্ষের একটি বসতঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে তাকে।

সায়রা বেগম বলেন, ‘স্বপ্নেও ভাবিনি এরকম একখান ঘর পাবো। অনেক খুশি হইছি। দোয়া করি যারা আমার মতন অসহায় মানষির কথা ভাইবে ঘর বানাই দেছে তাগের আল্লাহ ভাল করুক।’

সায়রা বেগমের মত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্ম শতবর্ষে খুলনার কয়রা উপজেলায় গৃহহীন ৩৬ টি পরিবার পেয়েছেন দুর্যোগ সহনীয় ঘর। দুর্যোগে সহায় সম্পদ হারানো হতদরিদ্র পরিবারগুলো ঘর পেয়ে দারুন খুশি। 

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ‘জমি আছে, ঘর নেই’ এ প্রকল্পের আওতায় উপজেলায় ৩৬টি ঘর দেয়া হয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে দুই লাখ ৫৮ হাজার টাকা ব্যয় করা হয়েছে। ৩৬টি ঘর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৯২ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। দুই কক্ষ বিশিষ্ট ঘরের সাথে রয়েছে একটি রান্নাঘর ও একটি টয়লেট। 

উপজেলার উত্তর বেদকাশি গ্রামের অমরেশ মুন্ডা বলেন, বুলবুল ঝড়ে ঘর হারিয়ে চিন্তায় পড়েছিলাম। নতুন ঘর তুলতে অনেক খরচ। লোকের ক্ষেতে খামারে কামলা দিয়ে তিন বেলা খাবার জোগাড় করা যায়। কিন্তু ঘর বানানোর টাকা জোগাড় করা যায় না। সরকারিভাবে ঘর পেয়ে অনেক ভাল লাগছে। 

কয়রা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জাফর রানা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবিলের টাকায় মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে এ উপজেলার ৩৬টি গৃহহীন পরিবারকে নতুন ঘর তৈরী করে দেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সভাপতি করে ৫ সদস্যের কমিটির সরাসরি তত্বাবধায়নে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়েছে।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল কুমার সাহা বলেন, পর্যায়ক্রমে এ উপজেলায় প্রতিটি হতদরিদ্র পরিবারকে পুনর্বাসন করা হবে। 

খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনের সংসদ সদস্য মোঃ আখতারুজ্জামান বাবু বলেন, অসহায় মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি জানান, সুন্দরবন সংলগ্ন এ জনপদের সার্বিক উন্নয়নে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। 


 

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
খুলনা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর