আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
পিরোজপুরে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু ঠাঁকুরগায়ে ঠান্ডাজনিত রোগে ৩ শিশুর মৃত্যু, হাসপাতালে শতাধিক শিশু বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৩০ টি কুকুর উপহার দিল ভারত রাজধানীতে ২টি চলন্ত বাসে আগুন এসএ গেমসে ভারোত্তোলন ৯৬ কেজি শ্রেণীতে স্বর্ণপদক জিতলেন জিয়ারুল ইসলাম দুই লঞ্চের সংঘর্ষ : ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন এসএ গেমসে ভারোত্তলনে স্বর্ণ জিতলেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত খুলনায় বোমা বিস্ফোরণ : আইএস’র দায় স্বীকার

শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
সিদ্ধিরগঞ্জে ২৮ কেজি গাঁজাসহ এক জন আটক বরিশালে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আটক ১ সপ্তম স্বর্ণ উপহার দিলেন ফেন্সিংয়ের ফাতেমা আসন্ন মুজিব বর্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ডক্টর অব লজ’ ডিগ্রি প্রদান করবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি, আটক ২ মেহেরপুরে ৮ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি আটক
৫১

বেহাল সড়কে ৩০ হাজার মানুষের ভোগান্তি

ঢাকা অফিস

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০১৯  

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার দেওয়ানগঞ্জ বাজার সড়কে দীর্ঘদিনেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। বর্ষাকাল এলেই গুরুত্বপূর্ণ তিন কিলোমিটার এই কাঁচা সড়কটি চাষ দেওয়া ধানক্ষেতের মতো হয়ে যায়। থিকথিকে কাদা। কেউ অসুস্থ হলে কোলে করে এই কাদাপথ পার হতে হয়। কৃষকেরা কৃষিপণ্য বাজারে নিতে পারেন না। এ সময় স্কুলে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে যায়। বিকল্প না থাকায় এই সড়ক দিয়ে ১৫ গ্রামের অন্তত ৩০ হাজার মানুষ নিয়মিত এই কাদা মাড়িয়ে যাতায়াত করে।

এই সড়কে প্রতিদিন মহেষকুড়া, বিরাশি, কুর্শা, চরপাড়া, কাকুরিয়া, রাজাপুর, কয়ারপুর, নরেন্দ্রপুর, ফুলবাড়িয়া, ছালুয়াপাড়া, খারুয়া, খড়িয়া, কোনাবাগাইর, বীরবাগাইর ও টাওয়াইল গ্রামের লোকজন চলাচল করে থাকে। ফলে এসব গ্রামের লোকজনকে স্কুলে-কলেজ, মাদ্রাসা ও দেওয়ানগঞ্জ বাজারে যেতে সীমাহীন কষ্ট করতে হয়। বর্ষায় প্রায় কোমর সমান পানিতে সড়কটি তলিয়ে যায়।

দেওয়ানগঞ্জ বাজার ও এর আশেপাশে রয়েছে সরকারি-বেসরকারি সাতটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এগুলো হচ্ছে দেওয়ানগঞ্জ ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, রাজাপুর ফাজিল মাদ্রাসা, রাজাপুর বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, আফতাব উদ্দিন দাখিল মাদ্রাসা, দেওয়ানগঞ্জ সরকারি, নরেন্দ্রপুর সরকারি ও রাজাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ ছাড়া দেওয়ানগঞ্জ বাজারে রয়েছে খারুয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, খারুয়া ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও ব্যাংক এশিয়া।

দেওয়ানগঞ্জ বাজারের ওষুধ ব্যবসায়ী মোস্তাকিন বলেন, সড়কটি পাকা করার দাবি দীর্ঘদিনের। কিন্তু আজও বাস্তবায়ন হয়নি।

রাজাপুর গ্রামের সাইদুল ইসলাম বলেন, রাতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে এই সড়ক দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় খুবই দুরাবস্থায় পড়তে হয়। তাই সড়কটি পাকা করা খুবই প্রয়োজন।

সংশ্লিষ্ট এলাকার ইউপি সদস্য মো. ওয়ালিউল্লাহ বলেন, এই সড়কে চলাচলে জনগণকে খুবই দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সড়কটি দ্রুত পাকা করা জরুরি।

রাজাপুর ফাজিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. হাদিউর রহমান বলেন, রাস্তাটি পাকা না হওয়ায় শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর চলাচলে ভীষণ অসুবিধা হচ্ছে। আমাদের প্রাণের দাবি রাস্তাটি দ্রুত পাকা করা হোক।

খারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসনাত ভুইয়া মিন্টু বলেন, জনগুরুত্বপূর্ণ এই কাঁচা সড়কটি পাকা করা অত্যন্ত জরুরি। ঐতিহ্যবাহী দেওয়ানগঞ্জ বাজার ও একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে এখানে। ইতিমধ্যে সড়কটি পাকা করার জন্য এমপি মহোদয়ের সাথে কথা বলেছি।

নান্দাইল উপজেলা প্রকৌশলী মো. আবুল খায়ের মিয়া বলেন, এমপি মহোদয় যদি এই কাঁচা রাস্তাটি পাকাকরণের তালিকায় অন্তর্ভুক্তি করেন তবে সেটি আমরা বাস্তবায়ন করতে পারবো।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর