আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
গানপাউডার ও ককটেলসহ জামায়াত-শিবিরের ১৬ কর্মী আটক চট্টগ্রামের বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১৪টি ইউনিট হবিগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস উল্টে নারীসহ নিহত ৩ টুঙ্গিপাড়া পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী মিরপুর-৭ এর চলন্তিকা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন, কয়েকশ ঘরবাড়ি পুড়ে ছাই যশোরে চোর সন্দেহে ভ্যানচালককে পিটিয়ে হত্যা পবিপ্রবিতে র‌্যাগিংয়ের দায়ে ১৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

শুক্রবার   ২৪ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পারাবত এক্সপ্রেসে ভয়াবহ আগুন কক্সবাজারে বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১ পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি দিয়ে বাংলাদেশের মাঠের লড়াই শুরু আজ আইসিজের অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ প্রত্যাখ্যান করলো মিয়ানমার নারায়নগঞ্জে জাহাজের নিচে চাপা পড়ে শ্রমিক নিহত, নিখোঁজ ১
৩০৬

বিএনপি-জোট টানাপোড়েন, আন্দোলনে পাশে নেই কেউই

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত ১ : ৪৮ পিএম

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০১৯  

দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে এক দফা আন্দোলন শুরু করতে চায় বিএনপি। সেই লক্ষ্যে রাজপথে জোরোলো আন্দোলন গড়তে চায় দলটি।

তবে এই আন্দোলনে ২০ দলীয় জোট কিংবা ঐক্যফ্রন্টের সহযোগিতা না পাওয়ায় গভীর হতাশায় রয়েছে বিএনপির হাইকমান্ড। সম্মিলিত আন্দোলন গড়ে তুলতে এরই মধ্যে জোটের শরীকদের সাথে যোগাযোগ শুরু করেও কোনো সমর্থন না পাওয়ায় এই আন্দোলনের সফলতা নিয়েও শঙ্কায় রয়েছেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

সূত্র নিশ্চিত করেছে, বিএনপির জোটে শরীক দলগুলো এমনিতেই নানা কারণে টানাপোড়েনে রয়েছে। দলগুলো নিজেদের ঐক্য ধরে রাখতে পারছে না। এ অবস্থায় তাদের পক্ষে বিএনপির হয়ে মাঠে নামা দূরহ হয়ে পড়েছে। একই সাথে শরীক দলগুলোর বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রতি সমবেদনা থাকলেও তারেক রহমান ইস্যুতে রয়েছে বিস্তর মতপার্থক্য। খোদ বিএনপিতে যেমন তারেকে প্রতি অসন্তোষ রয়েছে, একই ধরণের এ্যালার্জি রয়েছে তারেক রহমানের প্রতি শরীক দলগুলোর মাঝে। এসব কারণে রাজপথে এক প্লাটফর্মে আসতে চাইছে না দলগুলো।  

এছাড়া, জোটের বড় একটি অংশ ভাবছে, আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বের করা যাবে না। আইনী প্রক্রিয়ায়ই তাকে বের হতে হবে। কাজেই আন্দোলন করে কোনো লাভ নেই।    

বিএনপি ও জোটের একাধিক সিনিয়র নেতার সাথে কথা বলে দলের আন্দোলন, সম্ভাবনা ও শঙ্কার বিষয়ে জানা গেছে। বেগম জিয়ার মুক্তি আদায়ে সম্মিলিত আন্দোলনের পরিকল্পনার বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, ডিসেম্বর মাসে আমরা দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলে বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে চাই। সেই লক্ষ্যে আমরা বিভিন্ন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। বিএনপির পক্ষে এককভাবে রাজপথে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা সম্ভব নয়। যার কারণে আমরা ২০ দলীয় জোট ও ঐক্যফ্রন্টকে আমাদের এই একদফা আন্দোলনে যুক্ত করার চেষ্টা করছি। যদিও আমাদের এই আন্দোলন নিয়ে তাদের অনেক প্রশ্ন ও আপত্তি রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা দুই জোটের দ্বন্দ্ব দূর করে রাজপথে নেমে লাগাতার আন্দোলন করার চেষ্টা করছি। এরইমধ্যে দুই জোটের নেতাদের সহায়তা চেয়ে চিঠি দিয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা আমাদের ডাকে সাড়া দেয়নি। দুই জোটের নেতারা আমাদের এই দুঃসময়ে সাহায্য না করলে রাজপথে আমাদের আন্দোলন গড়ে তোলাটা অসম্ভব হয়ে পড়বে।

এদিকে বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম দল বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেন, ফাঁকা বুলি দিয়ে বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে পারবে না বিএনপি। সত্যি বলতে- দলটির নেতারা বেগম জিয়ার মুক্তি আদায়ে ঐক্যবদ্ধ নন। রাজপথে এককভাবে আন্দোলন করার সক্ষমতা দলটির নেই। যার কারণে সান্ত্বনা হিসেবে কঠোর আন্দোলনের কথা বলেন দলটির নেতারা। তাদের এই আন্দোলন কেবল বেগম জিয়ার মুক্তি কেন্দ্রিক। দেশবাসী কী ভাবছে, জোটের দলগুলোর ভাবনা কী, সেটি নিয়ে বিএনপি নেতাদের কোনো চিন্তা নেই। স্বার্থপর ও এককেন্দ্রিক চিন্তা-ভাবনা, রাজপথের আন্দোলনে বিএনপির দুই জোটের নেতা-কর্মীদের বিভক্তির কারণে জনগণকে তারা পাশে নাও পেতে পারে।

 

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর