• বুধবার   ০১ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৮ ১৪২৬

  • || ০৭ শা'বান ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
কুমিল্লায় মাইক্রোবাস খাদে পড়ে নিহত ৩ গাজীপুরে একই ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানের মরদেহ উদ্ধার সাধারণ ছুটি আরো বাড়ানোর ইঙ্গিত প্রধানমন্ত্রীর করোনা: ভিডিও কনফারেন্সে দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী দিনাজপুরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত
২৫

বাংলায় এলিয়েনের কাছে বার্তা পাঠালো নাসা

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

শিরোনাম পড়ে হয়তো নিজেকেই প্রশ্ন করছেন, এলিয়েনদের মধ্যেও কি বাঙালি আছে? হ্যাঁ কিংবা না—উত্তর যা-ই হোক, বাংলায় এলিয়েনের কাছে বার্তা পাঠিয়েছে নাসা। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থার বিজ্ঞানীরা জানতে চেয়েছেন, ভিন গ্রহবাসী কী বাংলা ভাষা বুঝতে পারবে? তবে এর উত্তর এখনও মিলেনি।

ঘটনাটি ১৯৭৭ সালের। তবে এ বিষয়ে গবেষণা এখনও চলছে। অবশ্য এর আগে এলিয়েনের খোঁজ পেতে মরিয়া বিজ্ঞানীরা। নাসার গবেষকেরা বলেছেন, এ সৌরজগতে আমরাই শুধু নই, আমাদের জানাশোনার বাইরে অন্য কোথাও প্রাণের উদ্ভব ঘটতে পারে। নাসা তা প্রমাণ করার খুব কাছে চলে এসেছে।

অনেকেই এলিয়েনদের খুঁজে পাওয়া কিংবা তাদের সঙ্গে যোগাযোগের বিষয়টি নিছকই বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনির বিষয় বলেই মনে করেন। বিজ্ঞানীরা সে কারণে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মানুষের ভুল ভাঙাতে চাচ্ছেন। মূলত বাংলায় বার্তা পাঠানোটা একটা টোপ ছিল মাত্র। শুধু বাংলা নয়, বিভিন্ন ভাষাভাষী মানুষ ও সংস্কৃতি ও যুগ থেকে নির্বাচিত সংগীত এবং বিশ্বের ৫৫টি ভাষায় সম্বোধন রেকর্ড করা হয়। এর মধ্যে হিন্দি, পাঞ্জাবি, কন্নড, মারাঠি ভাষাও রয়েছে।

এলিয়েনকে পাঠানো ওই বাংলা বার্তায় লেখা ছিল, ‘নমস্কার, বিশ্বে শান্তি হোক’। খাতা-কলমে লেখা ছাড়াও মানুষের হৃৎস্পন্দন, বৃষ্টির শব্দ ও বিভিন্ন যন্ত্রের আওয়াজ রেকর্ড করে পাঠানো হয়। উন্নত মানের অডিও শোনাতে এ পদক্ষেপ নিয়েছে তারা। অনেক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তাজমহলসহ উপমহাদেশের বেশ কিছু জনপ্রিয় জায়গার ছবিও তুলে পাঠানো হয়।

প্রয়াত প্রখ্যাত মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানী, জনপ্রিয় লেখক কার্ল সেগান এ অভিযানের মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন। তার নেতৃত্বে পাঠানো ভয়েজারে দুটিতে রয়েছে সোনালি চাকতি। বিজ্ঞানীরা এদের গোল্ডেন রেকর্ড বলে ডাকেন। ৩০ সেন্টিমিটার ব্যাসার্ধের এ থালা মূলত সোনায় মোড়ানো কপার নির্মিত ফোনোগ্রাফ। কার্ল সেগানের কথায়, এ মিশনের মাধ্যমে মানব সভ্যতা সম্পর্কে জানতে পারবে এলিয়েনরা। 

১৯৭৭ সালের ২০ আগস্ট ভয়েজার ২ ও ৫ সেপ্টেম্বর ভয়েজার ১ উৎক্ষেপণ করে নাসা। যান দুটি এখন পৃথিবী থেকে এতটাই দূরে, অন্যকোনো যান এগুলোর ধারে-কাছেও নেই। এর মধ্যে ভয়েজার ১ পৃথিবী থেকে এক হাজার ২০০ কোটি মাইল দূরে অবস্থান করছে। এগুলো এখনও বিজ্ঞানীদের নজর এড়ায়নি। যেভাবে গবেষক, বিজ্ঞানী ও উদ্যোক্তারা উঠেপড়ে লেগেছেন এ দশকের মধ্যে লক্ষ্য অর্জন করে ফেলা অসম্ভব বলে মনে হচ্ছে কী? দেখা যাক!

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর