• শুক্রবার   ২৩ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৮ ১৪২৭

  • || ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আজকের খুলনা

বর্ষায় ঘর জীবাণুমুক্ত রাখার দারুণ কৌশল

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৮ আগস্ট ২০২০  

বর্ষার এই মৌসুমে যখন তখন বৃষ্টি এসে চারদিকে স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ সৃষ্টি করে। এই সময় শুধু বাইরেই নয়, ঘরের নানা জায়গায় ফাঙ্গাস ও ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে দেখা যায়। আর এমন পরিবেশে জীবাণু সংক্রমণ বেড়ে নানারকম ঋতুভিত্তিক অসুখবিসুখ দেখা দেয়। অন্যদিকে রয়েছে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়ও।

তাই এই ঋতুতে সুস্থ থাকার জন্য আমাদের ঘরবাড়ি পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখা জরুরি। এমন কিছু কৌশল রয়েছে যা সহজেই বর্ষায় আপনার ঘর জীবাণুমুক্ত রাখবে। চলুন জেনে নেয়া যাক সেই কৌশলগুলো সম্পর্কে-

> বাইরে থেকে ঘরে আসার আগে অবশ্যই হাত-পা ধুয়ে নিন। তবে শহুরে অধিকাংশ বাড়িতে সেই সুযোগ থাকে না। তাই বাইরে থেকে এসে সোজা বাথরুমে যান। দরজার কাছেই ঘরে পরার স্যান্ডেল রাখুন যাতে মেঝেতে পা দেয়ার মাধ্যমে জীবাণু না ছড়ায়। বাইরে থেকে ফিরে গরম পানি দিয়ে গোসল করতে পারলে ভালো। আর গোসলের সময় না থাকলে ভালো করে সাবান দিয়ে হাত-পা ধুয়ে ফেলুন। একইসঙ্গে বাইরে থেকে আনা ব্যাগ আলাদা স্থানে রাখুন অথবা দ্রুত জীবাণুমুক্ত করে ফেলুন।

> আমরা অনেকসময় আলসেমি করে প্রতিদিনের কাপড় না ধুয়ে জমা করে রাখি। পরে সেগুলো একবারে ধুই। কিন্তু এই ঋতুতে কাপড় জমতে দেয়া ঠিক হবে না। বিশেষ করে ভেজা কাপড়। বাইরে থেকে বৃষ্টিতে ভিজে এসে সেই কাপড় কখনোই জমিয়ে রাখবেন না, এতে ফাঙ্গাস ও ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে। ফলে দেখা দিতে পারে চর্মরোগ। কাপড় আলমারিতে রাখার আগে ভালো করে শুকিয়েছে কিনা তা নিশ্চিত হন।

> এই ঋতুতে চামড়ার পরিবর্তে অন্য ম্যাটেরিয়ালের তৈরি জুতা ব্যবহার করুন। যা ভিজে গেলেও দ্রুত শুকিয়ে যায়। আর যে জুতা পরে বাইরে যাচ্ছেন, তা ঘন ঘন পরিষ্কার করুন। বাইরে থেকে কাদা ও পানিতে ভেজা জুতা জীবাণুর দারুণ আবাসস্থল। তাই সুস্থ থাকতে শুকনা জুতা ব্যবহার করুন। জুতা শুকাতে খবরের কাগজ ব্যবহার করতে পারেন। এটি দ্রুত পানি শোষণ করে। আর যেসব জুতা ধোয়া যায় সেগুলো সপ্তাহে বা পনেরো দিনে একবার সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

> আমরা অনেকেই ঘরবাড়ি পরিষ্কার রাখলেও বাথরুম আর রান্নাঘর পরিষ্কার ও শুকনা রাখার বিষয়টি অতটা গুরুত্ব দেই না। অথচ এখানেই সবচেয়ে বেশি ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া থাকে। এদিকে আমাদের দেশিয় রান্নাবান্নায় রান্নাঘর ময়লা বেশি হয়, ভেজেও বেশি। বাইরে থেকে বাজার এনে আমরা এখানেই ঢালি। তাই এখানে জীবাণু থাকা স্বাভাবিক। প্রতিদিন রান্নাঘর ভালো করে মুছে ফেলুন। মেঝেই শুধু নয়, বেসিন, চুলা, চুলার চারপাশ, কিচেন কাউন্টার ইত্যাদি জীবাণুদূরকারী তরল মিশিয়ে মুছে নিন। একই পদ্ধতিতে প্রতিদিন বাথরুমের মেঝে, টয়লেট সিট, বেসিন, তোয়ালের স্ট্যান্ড, দেয়াল ও আয়না মুছে শুকনো রাখুন।

> জীবাণুনাশক ব্যবহার করে পুরো বাড়ির জীবাণু ও পোকামাকড় দূর করাই হলো পেস্ট কন্ট্রোল। সম্ভব হলে বর্ষায় একবার পুরো বাড়ির পেস্ট কন্ট্রোল করুন। যা নিজেরাই বা বিভিন্ন ভাড়াটে প্রতিষ্ঠানের সাহায্য নিয়ে করতে পারেন। বছরে একবার পেস্ট কন্ট্রোল করা ভালো, এতে ইঁদুর-তেলাপোকার উৎপাত কমার পাশাপাশি মশা-মাছির উপদ্রবও কমবে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা