• বৃহস্পতিবার   ০৯ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৫ ১৪২৭

  • || ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪১

আজকের খুলনা
১০২

বটিয়াঘাটায় চুই চাষে সফল ধীরাজ বালা এখন অনেকেরই প্রেরণার উৎস

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ২৮ অক্টোবর ২০১৯  

উদ্যোগ থাকলে কৃষি কাজে সফলতা অর্জন করে যে বিত্তবান হওয়া যায় খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার বটিয়াঘাটা ইউনিয়নের বারুই আবাদ গ্রামের ধীরাজ বালা তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

বটিয়াঘাটা উপজেলা কৃষি দপ্তরের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কৃষ্ণপদ বিশ্বাসের অনুপ্রেরণায় ২০১৫ সালে ৬০ শতক জমিতে চুই চাষ শুরু করেন। এখন তার জমিতে প্রায় তিন হাজার চুই এর ঝাঢ়। তিনি শুধু চুই এর ঝাঢ় থেকে কাটিং বিক্রী করে বছরে ৫/৬ লাখ টাকা উপার্জন করেন। তার দেখাদেখি উপজেলায় অনেকে এখন চুই চাষে এগিয়ে এসেছেন।

শুধৃ চুই চাষই নয় একই জায়গায় এক বিঘা জমিতে গলদা, রুই-কাতলা ও গ্রাসকাপ চাষ করে বছরে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করেন। উন্নত প্রযুক্তিতে মাছ চাষের জন্যে তিনি ২০০১ সালে জাতীয় পর্যায়ে সফল মৎস চাষী হিসাবে পুরষ্কৃত হন। ২০০২ সালে উপজেলা পর্যায়ে কৃষি মেলায় তিনি প্রথম পুরষ্কার লাভ করেন। এবং ২০১২ সালে উপজেলার শ্রেষ্ঠ কৃষক হিসাবে পুরষ্কৃত হন।

চুই চাষের সাথে সাথে তিনি উন্নত জাতের আম চাষ করে বছরে লক্ষাধিক টাকা আয় করেন। মৎস ঘেরের পাশের জমিতে তিনি নতুন করে চুই ঝাঢ় রোপন করেছেন এবং চলতি অর্থবছরে উন্নত জাতের বেগুন চাষ শুরু করবেন। একজন অবসরপ্রাপ্ত প্রাইমারি শিক্ষক হিসেবে কৃষি ক্ষেত্রে তার এ প্রচেষ্টা এখন জেলার সীমানা ছাড়িয়ে জাতীয় পর্যায়েও অনেকের অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

তার চুই বাগানে বর্তমানে তিন হাজারের মতো চুই এর ঝাঢ় রয়েছে। তবে তার চুইয়ের বৈশিষ্ট্য হলো লতার মতো কোন গাছ বেয়ে ওঠে না, ঝাঢ় হিসাবে ত্রিশ টাকা দিয়ে এক একটা কাটিং কিনতে হয়। তাকে আরও উৎসাহ দেওয়ার জন্যে বর্তমান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা দীপন বিশ্বাস সহ অনেকে সার্বিকভাবে সহযোগীতা করে যাচ্ছেন।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
খুলনা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর