• বৃহস্পতিবার   ০২ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ১৮ ১৪২৭

  • || ১১ জ্বিলকদ ১৪৪১

আজকের খুলনা
৫০০৫

ফিরে দেখা : ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারের সফলতা

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৬ জানুয়ারি ২০২০  

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। রুপকল্প ২০২১ এবং একশ’ বছরের ডেল্টা প্লানকে সামনে রেখে দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। উন্নয়নের মহান রুপকার, গণতন্ত্রের মানসকন্যা শেখ হাসিনার দূরদর্শী চিন্তাধারা ও যুগোপযোগী বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে দেশ থেকে দূর হয়েছে ক্ষুধা-দারিদ্র্য-বেকারত্ব। শিক্ষা, কৃষি, শিল্প, ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ, নারীর ক্ষমতায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা, স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠাসহ দেশের প্রতিটি সেক্টরে হয়েছে অভূতপূর্ব উন্নয়ন। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন নিয়ে আমাদের ধারাবাহিক পরিবেশনা ‘উন্নয়নের ১২ বছর’।

১১ মে ২০১৮ তারিখ যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস স্টেশন হতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপন করা হয়। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর পরিচালনার জন্য গাজীপুরে সজিব ওয়াজেদ’ ল্যান্ডিং স্টেশন স্থাপন করা হয়েছে। স্যাটেলাইট কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ‘বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড’ গঠন করা হয়েছে। বর্তমানে ৩৭% লোক মোবাইল ফোন ব্যবহার করে। দেশে ব্যবহৃত মোট সিম কার্ডের সংখ্যা ১৫.২৫ কোটি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক জীবন সংগ্রামের ওপর ৩০ মিনিটের একটি ফিল্ম নিয়মিত প্রদর্শন করা হচ্ছে। ৮,৫০০টি ডাকঘরকে পোস্ট ই-সেন্টারে রূপান্তরিত করা হয়েছে এবং ডাক পরিবহন ব্যবন্থার উন্নয়নের পদক্ষেপ হিসেবে ১১৮ টি মেইল গাড়ী সংগ্রহ করা হয়েছে। নারীর ক্ষমতায়নে টেলিটক কর্তৃক ১৫ লক্ষ মহিলার নিকট অপরাজিতা সিম বিতরণ করা হয়। ব্যাংকিং সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে ৬ লক্ষ হতদরিদ্র জনগোষ্ঠিকে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর ভাতা বিতরণ করা হচ্ছে। প্রযুক্তি নির্ভর ডাক পরিসেবা প্রবর্তনের জন্য ডাক বিভাগ ২০১৭ সালে ৩টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেছে।

বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ কর্মসূচি, এনএসটি ফেলোশিপ ও গবেষণা প্রকল্পের আওতায় এম এস, পিএইচডি, পোস্ট ডক্টরাল কোর্সে প্রায় ২৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০,৮৮৪ জন ছাত্র/ ছাত্রী, ফেলো/গবেষককে ফেলোশিপ এবং ৩,৪৩৫ টি গবেষণা প্রকল্পে অনুদান প্রদান করা হয়েছে। ক্যান্সার চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন, কেমিক্যাল মেজারমেন্ট, খনিজ সম্পদ বিষয়ে গবেষণা ইত্যাদির জন্য ৪টি ইনস্টিটিউট স্থাপন করা হয়েছে।

আই টি শিক্ষার প্রসার, সফটওয়ার শিল্পের প্রসার যশোরে ‘শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক,’ ঢাকায় ‘জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক,  গাজীপুরে “বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটি”, ‘সিলেট ইলেক্ট্রনিক্স সিটি’ ও দেশের সাতটি স্থানে ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টা’র স্থাপন করা হয়েছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩৯০১টি ল্যাব স্থাপন করে নিরবচ্ছিন্ন দ্রæতগতির ইন্টারনেট সংযোগ প্রদান করা হয়েছে। ১৩টি বেসরকারি আইটি প্রতিষ্ঠানকে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে এবং ১১টি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষায়িত ল্যাব এবং আইসিটি বিভাগে একটি ডিজিটাল ফরেনসিক ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। শিক্ষক বাতায়নে শিক্ষামূলক দেড় লক্ষাধিক ডিজিটাল কনটেন্ট, কিশোর বাতায়নে ২০ হাজারেরও অধিক কনটেন্ট শিক্ষা কার্যক্রমে ব্যবহার করা হচ্ছে।

২,৬৪,৯৭১ জনকে আইসিটি বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। যার মধ্যে ২৮,৭৮৩ জনের কর্মসংস্থান হয়েছে। ইন্টারনেটসেবা বর্তমানে বাংলাদেশের ৫৩% লোক ইন্টারনেট ব্যবহার করে। ৪জি চালু করা হয়েছে; ৫জি চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ২য় সাবমেরিন ক্যাবল নেটওয়ার্ক এর সাথে যুক্ত হয়েছে। ৩,৬০০টি ইউনিয়নে অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগ প্রদান করা হয়েছে। দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল সেন্টার (ইউডিসি) চালু করা হয়েছে। ১,১১০টি ইউনিয়ন পরিষদে এবং ৩৪০ টি উপজেলা পরিষদে নেটওয়ার্ক সংযোগ স্থাপনের লক্ষ্যে মোট ১৬৯০০ কি. মি. অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবল স্থাপন হয়েছে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ আইসিটি বিভাগের সবচেয়ে বড় অর্জন সরকার কর্তৃক ১২ ডিসেম্বর জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস হিসেবে ঘোষণা। এ পর্যন্ত ৩টি আইন, ৩টি নীতিমালা, ৬টি বিধিমালা, ১টি স্ট্রাটেজি প্রণয়ন করা হয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ এর খসড়া বর্তমানে সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে বিবেচনাধীন রয়েছে। নাগরিক সেবা প্রদানের লক্ষে ৪৫ হাজারেরও বেশি অফিসের তথ্য সম্বলিত বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন এবং ৩৩৩ কলসেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে আড়াই হাজারেরও বেশী অফিসে ৪০ হাজার কর্মকর্তাকে ই-নথি ব্যবহারের আওতায় আনা হয়েছে। কৃষকরা খুব সহজে তথ্য পাওয়ার জন্য কৃষিবাতায়নে ৭৮ লক্ষ কৃষকের তথ্য, মাঠপর্যায়ে কর্মরত ১৮ হাজার কৃষিসম্প্রসারণ কর্মকর্তা, ৫০৪টি উপজেলা কৃষির তথ্য সংযুক্ত করা হয়েছে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
উন্নয়ন বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর