আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
বাঁশে ঝুলিয়ে যুবককে নির্যাতন, সালাম মেম্বারসহ আটক ৫ আলহাজ্ব টেক্সটাইলের পরিচালককে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা রাজধানীতে র‌্যাবের অভিযানে এক জঙ্গি আটক অর্থ আত্মসাত: রাজশাহী শিল্পকলার সাবেক নৃত্য প্রশিক্ষক গ্রেপ্তার পরিবহণ শ্রমিকদের কাজে ফেরার নির্দেশ শাজাহান খানের শনিবার সমাবেশের ঘোষণা জাবি আন্দোলনকারীদের খুলনায় ঘের ব্যবসায়ীকে হত্যার ঘটনায় ৩ জন আটক জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব ঢাকায় আসছেন আগামীকাল মাদারীপুর আদালতে জামিন পেলেন শামসুজ্জামান দুদু আফগানিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
শনিবার আত্মসমর্পণ করবে কক্সবাজারের শতাধিক জলদস্যু গাঙ্গুলির নিমন্ত্রণে কলকাতা পৌঁছেছেন সাবেক ক্রিকেটাররা খুলনায় প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার বাস্তবায়নে বিভিন্ন স্কুলের মানববন্ধন ডিআইজি পার্থ’র মামলার প্রতিবেদন ২৮ জানুয়ারি শিক্ষা অধিদপ্তরের ঠিকাদারের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা খুলনায় নৌ অঞ্চলে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপিত নওগাঁয় ইজিবাইক চালক হত্যা মামলার ৫ আসামি গ্রেফতার খুলনায় দুর্নীতি বিরোধী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত
১১

ফল আমদানি কমেছে ভোমরা স্থলবন্দরে

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৮ নভেম্বর ২০১৯  

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে ফল আমদানি কমেছে। এই স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি খরচ তুলনামূলকভাবে বেশি হওয়ায় ফল আমদানিকারকরা অন্য স্থলবন্দরের দিকে ঝুঁকছেন।

ভোমরা স্থলবন্দরের রাজস্ব শাখার তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের (২০১৯-২০)  প্রথম চার মাসে এ স্থলবন্দর দিয়ে ৩২ হাজার ১৩৩ দশমিক ৪৩৪ টন ফল আমদানি হয়েছে । গত অর্থবছরের একই সময়ে এ স্থলবন্দর দিয়ে ফল আমদানি হয় ৪৫ হাজার ৭৯৩ টন, যা চলতি অর্থবছরের তুলনায় ১৩ হাজার ৬৫৯ দশমিক ৫৬৬ টন বেশি। সেই হিসেবে গত অর্থবছরের প্রথম চার মাসে ফল আমদানিতে সরকারের রাজস্ব সংগ্রহ হয় ১৫১ কোটি ৬০ লাখ টাকা। অথচ চলতি অর্থবছরের গত চার মাসে ফল আমদানিতে রাজস্ব অর্জিত হয়েছে ১০৭ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় ফল আমদানি থেকে রাজস্ব আয় কমেছে ৪৪ কোটি টাকা।

ভোমরা স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ও আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স রোহিত ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী রামকৃঞ্চ চক্রবর্তী জানান, অন্যান্য বন্দরে ফল আমদানিতে ব্যবসায়ীরা যেসব সুযোগ-সুবিধা পান, ভোমরা স্থলবন্দরে তার কিছুই পান না।

অন্য স্থলবন্দরে প্রতি ট্রাক আনার ফল আমদানি করলে কার্টন বা বাক্সের মূল ওজন বাদ দিয়ে দেড় টন পর্যন্ত ওজনের বিপরীতে শুল্ক ছাড় দেয়া হয়। কিন্তু ভোমরা স্থলবন্দরে সব ধরনের ফল আমদানিতে কার্টন বা বাক্সের মূল ওজন ছাড়া বাড়তি কোনো ছাড় পান না ব্যবসায়ীরা।

ভোমরা স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, ফল একটি পচনশীল পণ্য। আমদানির সময় পচনসহ নানাভাবে ফল নষ্ট হয়। এজন্য অন্যান্য স্থলবন্দরে বাড়তি টিআর ওয়েট বা মোড়কসামগ্রী ওজন বাবদ ছাড় দেয়া হয়। কিন্তু ভোমরা স্থলবন্দরে এ সুবিধা ব্যবসায়ীদের দেয়া হয় না। ফলে অতিরিক্ত ব্যয়ভার বহন করতে হয় এ স্থলবন্দর ব্যবহারকারী ফল আমদানিকারকদের। এ কারণে ব্যবসায়ীরা অন্য স্থলবন্দরের দিকে ঝুঁকছেন। এছাড়া সম্প্রতি বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ফল আমদানি শুরু হয়েছে, যার প্রভাবও ভোমরা স্থলবন্দরে পড়েছে।

ভোমরা শুল্ক স্টেশনের দায়িত্বরত কাস্টমসের বিভাগীয় সহকারী কমিশনার মো.রেজাউল করিম বলেন, ‘বন্দরে যে কোনো পণ্য চাহিদার ওপর ভিত্তি করে আমদানি কম-বেশি হয়।’

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর