আজকের খুলনা

বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

আজকের খুলনা
২৫

পূজা এলেই স্মৃতিরা ভিড় করে : রাইমা

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

গত শুক্রবার ষষ্ঠীপূজার মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হয়েছে। মন্দিরে মন্দিরে এখন উলুধ্বনি, শঙ্খ, কাঁসর আর ঢাকের বাদ্যি। আজ নবমী চলছে। অন্য সাধারণ মানুষের মতো পূজার ছুটিতে দারুণ সময় পার করছেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনয়শিল্পীরাও।

এ তালিকায় রয়েছেন অভিনেত্রী রাইমা সেন। ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে পূজার সময়ে তার পছন্দের খাবার, পোশাক ও প্রিয় নানিকে (সূচিত্রা সেন) নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক কথা বলেছেন তিনি। রাইজিংবিডির পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হলো—   

‘‘পূজা মানেই আরো আরো ব্যস্ততা। প্যান্ডেল উদ্বোধন। চারদিক আলো ঝলমলে। সকলের মন ভালো, সে যে যেখানেই থাকুক! পূজার সময় প্রচুর মাছ খাই। আমি কিন্তু মেছো বাঙালি। পাবদা, মাগুর এই সব মাছ আমার ভীষণ প্রিয়। খাওয়ার প্রসঙ্গ এলেই বুম্বাদার একটা কথা মনে পড়ে।

একবার বুম্বাদা (প্রসেনজিৎ) বলেছিলেন, ‘রাইমা বোধহয় একমাত্র অভিনেত্রী যে ডায়েট না করেও নিজেকে মেইনটেইন করতে পারে।’ আমি পূজায় মিষ্টি ছাড়া, সব খাই।

দুর্গা পূজা মানে আমার কাছে কিছু স্মৃতি আর অনেকটা পরিবার। এই স্মৃতির ছায়া আজও আমার সঙ্গে। আম্মার (সুচিত্রা সেন) সঙ্গে সময় কাটানো। একসঙ্গে লাঞ্চ করা। নানারকম বাঙালি রান্না, খাওয়া, গল্প করা। আর গভীর রাতে সকলের চোখ এড়িয়ে আম্মাকে নিয়ে প্যান্ডেল হপিং। আম্মা খুব ঠাকুর দেখতে ভালোবাসতেন। তাই আম্মার সঙ্গে এক রকম লুকিয়েই প্যান্ডেলে পৌঁছে যেতাম। কেউ চিনতেও পারত না, লোকজন কমে আসত, খুব মজা হতো। পূজা উপলক্ষে আম্মা আমাদের দুই বোনকে অনেক উপহার দিতেন।

এই উপহারের ব্যাপারটা আজও আছে। মা (মুনমুন সেন) আমায় শপিংয়ে নিয়ে যায় প্যাম্পার করে। প্রচুর কেনাকাটা হয়। বেশ লাগে। একটা সাজ সাজ রব। আমি যতই ওয়েস্টার্ন আউটফিট পরি না কেন পূজায় আমি কনজারভেটিভ মুডে চলে যাই। লাইট ওয়েট কালারফুল শাড়ি। শাড়িতে রং চাই-ই চাই। হাজার হোক দুর্গা পূজা, যা বছরে একবারই আসে। শাড়ির সঙ্গে বেশ মানানসই গয়না। তবেই না দারুণ একটা লুক হবে!

আরেকটি বিষয় তো বলতে ভুলে যাচ্ছিলাম! মানুষ ভাবে নায়িকারা পূজায় প্রেম করবেই। আচ্ছা এটা আর কত দিন শুনতে হবে আমায়? পূজা এলেই স্মৃতিরা ভিড় করে। সে রকম একটা অভিজ্ঞতা মনে পড়ল। ‘হানিমুন ট্রাভেলস প্রাইভেট লিমিটেড’-এর সময় থেকে জানতে চাইছে, আমি কবে বিয়ে করছি! শেষবার দেখা হওয়ার সময় বলেছিল, ‘দশ বছর হয়ে গেল, এখনো বিয়ে করলে না!’ আমি এখনো অপেক্ষা করছি, প্রিন্স চার্মিংয়ের জন্য! তাই সাফ সাফ জানিয়ে দিচ্ছি, পূজায় এবার কোনো প্রেম নয়। আরো একটু নিজেকে ভালোবাসতে দিন।’’

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর