আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
শিক্ষার মান ঠিক না রাখলে এমপিওভুক্তি থেকে বাদ দেওয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী আবরারের রুমমেট মিজান পাঁচ দিনের রিমান্ডে ফিটনেস নবায়নহীন যানবাহনে তেল-গ্যাস না দেওয়ার নির্দেশ হাইকোর্টের বিমানের আধুনিকীকরণে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী দুই মাসে ফিটনেস নবায়ন করেছে ৮৯ হাজার ২৬৯টি গাড়ি

বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
হত্যা মামলায় ক্যাসিনো খালেদ ৭ দিনের রিমান্ডে উল্লাপাড়ায় বাস খাদে পড়ে নিহত ১, আহত ৮ খিলগাঁওয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রিকশাচালকের মৃত্যু তালায় মৎস্য ঘের থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার বৃহস্পতিবার আজারবাইজান যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
৪৪

পুষ্টিহীনতার কারণে খুলনার ১৭ ইউনিয়নের ৭০ ভাগ শিশু খর্বাকৃতির

বাটিয়াঘাটা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

খুলনার তিনটি  উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে অপুষ্টির শিকার শিশুরা।ফলে  এসব এলাকার  শিশুরা নানা সমস্যার মুখে রয়েছে। বটিয়াঘাটা, ডুমুরিয়া ও পাইকগাছা উপজেলার এ ১৭টি ইউনিয়নে ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের ৭০ ভাগই খর্বাকৃত (বয়সের তুলনায় কম উচ্চতা)। এর মধ্যে ১৮ ভাগ শিশু মারাত্মক খর্বাকৃত। আর ২৪ ভাগ শিশু মাঝারি আকারের খর্বাকৃত ও ২৬ ভাগ শিশু মৃদু খর্বাকৃত। ৩০ ভাগ শিশু স্বাভাবিক অবস্থায় রয়েছে।

ম্যাক্সনিউট্রিওয়াশ খুলনা জেজেএস প্রজক্টের আওতায় এক জরিপে এ চিত্র উঠে এসেছে। প্রতিষ্ঠানটি চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত জরিপ কাজ সম্পন্ন করে। এ কার্যক্রমে ২ বছরের কম বয়সী ও ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের ভাগ করে জরিপ করা হয়। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) খুলনা প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

জেজেএস খুলনার কর্মকর্তা তৌহিদা সুলতানা মাল্টিমিডিয়া জানান, ২০১৭ সালের অক্টোবর থেকে ৪ বছর মেয়াদী এ কার্যক্রম করা হয়। এ প্রকল্পের আওতায় উপকারভোগীর তালিকায় ৫ বছরের কম বয়সী শিশু, কিশোর-কিশোরী, প্রতিবন্ধী, গর্ভবতী নারী ও দুগ্ধদানকারী মা, দরিদ্র ও অতিদরিদ্র পরিবারের সদস্য, নব দম্পতি, বিধাব ও ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। ১৭টি ইউনিয়নের ৮২ হাজার ৫৯৯টি খানায় ৬ লাখ ২৫ হাজার ৩৯৯ জন মানুষ রয়েছে। এখানে ৩৯১টি স্কুলও রয়েছে।

তিনি জানান, অপুষ্টি ও পরিবেশগত সমস্যার কারণে এ সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। যা অসচেতনতা ও পুষ্টি সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান না থাকার কারণে সৃষ্টি। এ সমস্যা সমাধানে পুষ্টি জ্ঞান সঠিকভাবে জানানো, সচেনতা সৃষ্টির কাজ চলছে। আর সমস্যার উন্নীত হচ্ছে কিনা  তা মনিটরিংয়ের জন্য ২ বছরের কম বয়সী শিশুদের প্রতি মাসে ওজন ও উচ্চতা পরিমাপ করা হয়। আর ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের প্রতি ৩ মাসে ওজন ও উচ্চতা পরিমাপ করা হয়।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর