আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
শিক্ষার মান ঠিক না রাখলে এমপিওভুক্তি থেকে বাদ দেওয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী আবরারের রুমমেট মিজান পাঁচ দিনের রিমান্ডে ফিটনেস নবায়নহীন যানবাহনে তেল-গ্যাস না দেওয়ার নির্দেশ হাইকোর্টের বিমানের আধুনিকীকরণে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী দুই মাসে ফিটনেস নবায়ন করেছে ৮৯ হাজার ২৬৯টি গাড়ি

বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
হত্যা মামলায় ক্যাসিনো খালেদ ৭ দিনের রিমান্ডে উল্লাপাড়ায় বাস খাদে পড়ে নিহত ১, আহত ৮ খিলগাঁওয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রিকশাচালকের মৃত্যু তালায় মৎস্য ঘের থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার বৃহস্পতিবার আজারবাইজান যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
৩৫

দাকোপে জনপ্রিয় হচ্ছে ভাসমান বেডে সবজি চাষ

দাকোপ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

দাকোপ উপজেলার নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতার কারণে আবাদ না হওয়ায় অনেক জমি পতিত থাকতো। কিন্তু গত বছর থেকে বন্যাসহিষ্ণু ভাসমান বেডে সবজি ও মশলা চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ফলে অনাবাদি জমিতে উৎপাদিত হচ্ছে বিষমুক্ত সবজি। কচুরিপানা দিয়ে তৈরি ভাসমান বেডে বিভিন্ন প্রকার সবজির ভালো ফলন হওয়ায় লাভের মুখ দেখছেন কৃষকরা। জলাবদ্ধতা এবং বন্যাদুর্গত এলাকার কৃষকরা যাতে এভাবে সারা বছর সবজি চাষ করতে পারে, তাই এবছরও অনেকগুলো প্রদর্শনী প্লট করে দিয়েছে কৃষি বিভাগ।

কৃষকদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে- অতিবৃষ্টি ও বন্যায় কখনও ডুববে না, সেচের প্রয়োজন পড়বে না, কীটনাশক দিতে হবে না, এমনকি সারেরও প্রয়োজন হবে না এমন সবজিক্ষেত এতোদিন ছিল কৃষকদের স্বপ্নে। সেই স্বপ্ন এখন বাস্তবে পরিণত করছে কৃষি বিভাগ। দুয়েকটি নয়, প্রায় অর্ধশতাধিক ভাসমান বেডে বিভিন্ন প্রকার সবজি ও মশলা আবাদ করেছেন কৃষকরা।

প্রায় সারা বছরই জলাবদ্ধতা থাকে এবং বন্যা ও বৃষ্টির জন্য যেসব এলাকার ক্ষেত পানিতে ডুবে থাকে, সেসব জায়গায় কৃষি বিভাগ প্রদর্শনীর মাধ্যমে কলাগাছের ভেলায় এবং কচুরিপানা দিয়ে বেড করে দিয়েছে।

ভাসমান এসব বেডে আবাদ হচ্ছে লাল শাক, ঢেঁড়স, লাউ ও বিভিন্ন প্রকার সবজি। এ পদ্ধতিতে চাষাবাদ করে যথেষ্ট লাভ হওয়ার কারণে কৃষকদের মধ্যে আগ্রহ বাড়ছে। কম জমিতে বেশি ফসল আবাদ সম্ভব হচ্ছে বলেও জানিয়েছে কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে  জানা গেছে, ‘প্রতিবছরই বন্যা, অতিবৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে এই উপজেলার  প্রায় ২৫ হেক্টর জলাবদ্ধ থাকে। ক্ষেত তলিয়ে ফসল নষ্ট হয়। তাই সময় মতো ফসল আবাদ করা যায় না। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় প্রান্তিক কৃষকরা। তবে ভাসমান বেডে সবজি ও মশলার আবাদ করে কৃষকরা লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছে।’

ভাসমান বেডে সবজি ও মশলার আবাদ সম্প্রসারণ এবং জনপ্রিয় করার লক্ষ্যে কৃষি বিভাগ মাঠে কাজ করছে। এটি একটি লাভজনক পদ্ধতি। কৃষকরা এখান থেকে লাভবান হতে পারবে। তাছাড়া দেশে সবজির চাহিদাও পূরণ হবে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর