• বৃহস্পতিবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৯ ১৪২৭

  • || ০৭ সফর ১৪৪২

আজকের খুলনা
১৯৯

ডোনারদের থেকে টাকা নিয়ে জঙ্গিদের দিচ্ছেন তারেক!

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০১৯  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে বিএনপি কোনো প্রকারের আন্দোলনে সক্রিয় হয়ে উঠতে পারছে না বলে জানা গেছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন সময়ে সমাবেশ করার ঘোষণা দিলেও শেষ পর্যন্ত অর্থ সংকটের কারণে তারা আয়োজন করতে পারেনি। এমতাবস্থায় বিভিন্ন দেশে থাকা জঙ্গিদের কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশে নাশকতা তৈরির পরিকল্পনা করছেন তারেক রহমান। নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত এসব তথ্যের সত্যতা পাওয়া গেছে।

এদিকে গোপন সূত্রে জানা গেছে, তারেক রহমানের এমন পরিকল্পনায় বিপদে পড়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু এবং স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। মূলত তারেক রহমান বিএনপির এসব সিনিয়র নেতাদের চাপ দিয়ে জঙ্গি খাতে অর্থায়নের জন্য বল প্রয়োগ করছেন। আর এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছেন দলের ধনী নেতারা।

এ বিষয়ে যুক্তরাজ্য বিএনপি শাখার সভাপতি এম এ মালেক বলেন, জঙ্গি খাতে অর্থায়নের জন্য নয়, মূলত নির্বাচন পরবর্তী সময় থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত দলের কোনো কার্যকলাপে অংশগ্রহণ না করাসহ বিন্দুমাত্র অর্থ দিয়েও সহায়তা করেনি আব্দুল আউয়াল মিন্টু এবং মির্জা আব্বাসের মতো নেতারা। আর এ কারণে দল পরিচালনার জন্যই টাকা চেয়েছেন তারেক রহমান। এটা দোষের কিছু নয়, তিনি তার দলের জন্য দলের নেতাদের কাছে অর্থ সহায়তা নিতেই পারেন। এটা বিএনপির ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে কিছু নেতা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে তারেক রহমানের বক্তব্যের ভিন্ন ব্যাখ্যা দিচ্ছেন, যা দুঃখজনক।

জঙ্গি খাতে অর্থায়নে বল প্রয়োগ করা হয়েছে কি না, জানতে চাইলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু বলেন, যুক্তরাজ্য বিএনপির কিছু নেতার সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তারা আমাকে বলেছেন তারেক রহমান মূলত টাকা চাচ্ছেন জঙ্গিদের মাধ্যমে দেশে বিশৃঙ্খলা তৈরির জন্য। এটা মেনে নেয়া যায় না। কথাটা আমার বিশ্বাস হতো না। কিন্তু হলি আর্টিজান হামলায় জঙ্গিদের বিরুদ্ধে আদালত কর্তৃক প্রদান করা ঐতিহাসিক রায়ের পর তারেক রহমান চুপ ছিলেন। যা আমাকে কিছুটা ভাবিয়ে তুলেছে। হয়তো তারেক রহমানের সরাসরি যোগাযোগ না থাকলেও, জঙ্গিদের সঙ্গে ভিন্ন মাধ্যমে তিনি যোগাযোগ রাখছেন। আর এ কারণেই আদালত কর্তৃক জঙ্গিদের বিরুদ্ধে প্রদান করা রায় নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়াই প্রদান করেনি বিএনপি।

তিনি আরো বলেন, এ অবস্থায় যদি জঙ্গি খাতে অর্থ প্রদানের উদ্দেশ্যে তারেক রহমান আমাদের থেকে টাকা চেয়ে থাকেন, তবে সেটি দুঃখজনক হলেও আমাকে অর্থ প্রদান করতে হবে। কারণ ইতোমধ্যে আমার ছেলে তাবিথ আউয়ালকে ফোন করে তারেক রহমান বলেছেন, ১৫ দিনের মধ্যে ৪০ কোটি টাকা না দিলে, সন্তানসহ আমাকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হবে। পাশাপাশি আসন্ন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তাবিথকে মনোনয়ন না দেয়ারও হুমকি দিয়েছেন তারেক। এমতাবস্থায় আমাদের হাত বাধা। টাকা না দিয়ে তো আমি দেশ-বিদেশে বদনাম কুড়াতে পারব না। আসলে আমাদের কপালটাই খারাপ।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর