• মঙ্গলবার   ০৪ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২০ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আজকের খুলনা
১৩৮

ছাদ বাগানের আইন ও নীতিমালার দাবি

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ছাদ বাগানের প্রসার ও উদ্যোক্তাদের কারিগরি সহায়তায় নীতিমালা করার দাবি জানিয়েছে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)  ও বাংলাদেশ গ্রিন রুফ মুভমেন্ট।

আজ পবা কার্যালয়ে ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধ: ছাদ বাগান ও পরিবেশ সুরক্ষা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ দাবি জানান। 

বাংলাদেশ গ্রিন রুফ মুভমেন্টের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. গোলাম হায়দার বলেন, রাজধানীর ভবনগুলোর ১০ শতাংশেও ছাদ বাগান নেই। ভবিষ্যতে ছাদ বাগান সুরক্ষায় নীতিমালা প্রয়োজন। 

লিখিত বক্তব্যে তার উপস্থাপিত দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে, ছাদ বাগানের জন্য সিটি করপোরেশনের কর মওকুফ ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২০ শতাংশ করা। যারা ছাদ বাগান করছে না, তাদের কর ২০ শতাংশে উন্নীত করা।   

রাজধানীর কমপক্ষে ৫০ শতাংশ ভবনে ছাদ বাগান বাধ্যতামূলক করে আইন প্রণয়ন করা। 

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ছাদ বাগান প্রসারে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া। বাগান ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া। 

পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর মাধ্যমে নিয়মিত ছাদ বাগান পরিদর্শনের ব্যবস্থা করতে সরকারি উদ্যোগ নেওয়া। কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনে নগরীয় কৃষি উইং প্রতিষ্ঠা করা।

ডেঙ্গুমুক্ত ছাদ বাগান গড়ে তোলার জন্য বাগানমালিকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সচেতন করতে হবে। বর্ষার শুরুতেই ডেঙ্গু নিধনে সিটি করপোরেশনের পদক্ষেপ নিতে হবে।  

পবার চেয়ারম্যান আবু নাসের খান বলেন, গাছপালার অভাবে শহরের তাপমাত্রা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ছাদ বাগান মানেই মশার আবাসস্থল নয়। এ তথ্যটি ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, রাজধানীবাসীর মানসিক অস্থিরতা কমাতে গাছপালা গুরুত্বপূর্ণ। ছাদ কৃষি বিশ্ব অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। 

পবার সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোবহান বলেন, ছাদ বাগান করার জন্য বাড়ির মালিকদের ১০ শতাংশ কর মওকুফ করা হচ্ছে। আবার বলা হচ্ছে, ছাদ বাগান মশার আবাসস্থল। বিষয়টিতে সিটি করপোরেশনের বিশেষ নজর দিতে হবে। ছাদ বাগান মানুষের ফলমূলের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি পাখির খাবারের ব্যবস্থাও করে থাকে। 

তিনি বলেন, ছাদ বাগানের নীতিমালা ও আইন প্রণয়ন করে ভবনের নকশা অনুমোদনের আগে রাজউককে বিষয়গুলো খতিয়ে দেখার ব্যবস্থা করতে হবে। 

ছাদ বাগানের উদ্যোক্তা দীনা খাদিজা বলেন, ছাদ বাগানের কারণে মশার প্রজনন হচ্ছে না। মশার প্রজনন রোধে সিটি করপোরেশনকে ঠিকভাবে মশার ওষুধ প্রয়োগের পাশাপাশি রাস্তাঘাটে জমে থাকা পানি নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে। 

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ গ্রিন রুফ মুভমেন্টের সহ-সভাপতি মামুন হোসেন, বাংলাদেশ নার্সারি মালিক সমিতির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন, ছাদ বাগানের মালিক মোর্শেদা খানম রেনু প্রমুখ। 

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
সংগঠন সংবাদ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর