আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
ক্ষমা চাইলেন দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক উত্তর বাড্ডার ফোম কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে বঙ্গবন্ধু বিপিএল :১৮১ রানের লক্ষ্যে ব্যাটে নেমে ৩৬ রানেই ২ উকেটের পতন কুমিল্লার. (৩.১ ওভার) চাঁদাবাজ-ভূমিদস্যূ হাসু কাসু বাহিনীর মূল হোতা হাসেমকে অস্ত্র-ইয়াবাসহ আটক করেছে র‌্যাব যুক্তরাজ্যে নির্বাচন : জয় পেলেন বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুপা, রুশনারা ও আফসানা বরিশালে পাঁচ বস্তা গাঁজাসহ নারী আটক কক্সবাজারে ৮ লাখ ইয়াবা ও ছয়টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ আটক ৪

শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
সিলেটে বিএনপির ৫৮ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা টেকনাফে ৮ লাখ ইয়াবা-অস্ত্রসহ ৪ ব্যবসায়ী আটক কুমিল্লার কোটবাড়ীতে স্কুলের ছাত্রাবাস থেকে এক ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার নোয়াখালীতে বাসচাপায় এক মাদ্রাসা ছাত্রী নিহত ধামরাইয়ে প্রাইভেট কার চাপায় মোটর সাইকেল আরোহী নিহত টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নতুন ৯ বিচারপতির শ্রদ্ধা পাটুরিয়া ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সারি এবার মেঘালয়ে কারফিউ, বন্ধ মোবাইল-ইন্টারনেট রোহিঙ্গা গণহত্যা ইস্যুতে সিদ্ধান্ত শিগগিরই : আইসিজে প্রেসিডেন্ট
৪৪

কয়রায় স্লুইস গেটে ফাটল, আতঙ্কে কয়েক হাজার কৃষক

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রকাশিত ১:১৪ পিএম

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০১৯  

খুলনার কয়রা উপজেলার কুশোডাঙ্গা-গিলাবাড়ি স্লুইস গেটের দুপাশে মাটি সরে গিয়ে বড় ফাটল দেখা দিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা আশংকা করছেন ওই ফাটলের কারণে যে কোন মুহুর্তে স্লুইস গেটটি ধসে নদীতে বিলিন হতে পারে। এতে করে বিস্তির্ণ এলাকা কয়রা নদীর পানিতে প্লাবিত হয়ে পড়বে। সেই সাথে ভেসে যাবে কয়েক হাজার একর জমির আমন ফসল। 

কয়রা উপজেলার বাগালি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ সাত্তার পাড় জানিয়েছেন, গত সোমবার রাতে ওই স্লুইস গেটের দুপাশের মাটি সরে গিয়ে ফাটল দেখা দিয়েছে। সেখান থেকে নদীর লোনা পানি প্রবেশ করতে থাকায় এলাকাবাসি আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিকভাবে সেখানে বালির বস্তা দিয়ে কোন রকমে পানি আটকে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, নদীতে এখন জোয়ার কম থাকায় বড় দূর্ঘটনা ঘটেনি। তবে ভরা তিথিতে জোয়ারের পানি বাড়লে বিপদ ঘটবে। 

স্থানীয় কৃষকরা জানিয়েছেন, স্লুইস গেটটি ধসে গেলে জোয়ারের পানিতে বাগালি, মহেশ্বরীপুর ও মহারাজপুর ইউনিয়নের প্রায় ২৫টি গ্রাম প্লাবিত হবে। সেই সাথে কয়েক হাজার একর জমির আমন ফসল বিনষ্ট হবে। তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রত স্লুইস গেটটি সংস্কারের দাবী জানিয়েছেন। 

মহেশ্বরীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কয়রা উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার সরদার বলেন, স্লুইস গেটটি ধসে গেলে এলাকার প্রায় তিন হাজার কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কৃষকের ক্ষতির কথা চিন্তা করে সেখানে স্বেচ্ছাশ্রমে দিন-রাত করা হচ্ছে। 

কয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল কুমার সাহা জানান, স্লুইস গেটের দু’পাশের মাটি সরে গিয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। তাৎক্ষনিকভাবে সেটি সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। স্লুইস গেটটি স্থায়িভাবে সংস্কার করা না গেলে বড় বিপদের সম্ভাবনা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ডকে (পাইবো) জানানো হয়েছে। 

এ ব্যাপারে পাউবোর উপ সহকারি প্রকৌশলী সেলীম মিয়া বলেন, স্লুইস গেটটি অনেক পূরানো হওয়ায় দূর্বল হয়ে পড়েছে। মেয়াদোত্তীর্নই বলা চলে। ওই স্লুইস গেটটিসহ কয়রা উপজেলার আরও কয়েকটি স্লুইস গেট নতুন করে নির্মাণের জন্য তালিকা পাঠানো হয়েছে। এ মুহুর্তে যাতে বড় কোন দূর্ঘটনা না ঘটে সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। 

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর