আজকের খুলনা
ব্রেকিং:
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেএমবির ৩ সদস্য আটক জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ দমনে অভিযান চালাবে এন্টি টেররিজম ইউনিট আন্তর্জাতিক আদালতে রোহিঙ্গা মামলার শুনানি ১০ ডিসেম্বর ২ উইকেট হারালো ভারত : ১৩ ওভারে সংগ্রহ ৫১ রান মুন্সিগঞ্জের দুর্ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১ মাথায় আঘাত পাওয়া লিটন দাস কলকাতা টেস্টে আর খেলতে পারছেন না উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ, বখাটের লাথিতে মেয়ের বাবা নিহত কক্সবাজারে নিখোজ ছাত্রীর বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার

শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের খুলনা
সর্বশেষ:
আমার সন্তানের অধিকার ছাড়বনা : বিদিশা এরশাদ কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার ডিগ্রি প্রথম বর্ষের পরীক্ষা শুরু ২৪ নভেম্বর ধর্মঘটের অজুহাতে চড়া সবজি-মাছের বাজার লন্ডনে সন্ত্রাসীদের গুলিতে প্রাণ গেল বাংলাদেশী যুবকের বরিশাল জেলা আদালতের সেরেস্তাদার সাময়িক বরখাস্ত দুর্দশাগ্রস্ত ঋণ, বিপাকে দেশের ব্যাংক খাত
১৪

আসিয়ানসহ ১৬ দেশের সঙ্গে অবাধ বাণিজ্য চুক্তি প্রত্যাখ্যান ভারতের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০১৯  

আসিয়ানভুক্ত ১০টি দেশসহ আরো ৬টি দেশের মধ্যে অবাধ বাণিজ্য চুক্তি (রিজিওনাল কম্প্রিহেনশন ইকোনমিক পার্টনারশিপ) এ যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে ভারত।

গতকাল সোমবার থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে আসিয়ানের এই সংক্রান্ত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। তবে দেশের স্বার্থে কোন আপস করা হবে না বলে জানিয়েছেন ভারতের প্রদানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ‘সব ভারতীয় নাগরিকের পক্ষে যখন আমি এই চুক্তির মূল্যায়ন করি, আমি কোনও ইতিবাচক উত্তর পাইনি। না গান্ধিজির আদর্শ, না আমার নিজের বিবেক! কেউই চুক্তির পক্ষে মত দেয়নি। ফলে জাতীয় স্বার্থে কোনও আপস নয়।’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, চুক্তিটি নিয়ে বিরোধিতা করেছেন কংগ্রেস এবং রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। তাদের উদ্বেগ, এর ফলে সস্তা চীনা পণ্যে বাজার সয়লাব হয়ে যাবে।

দিল্লি পারস্পরিক সুবিধাযুক্ত চুক্তি চেয়েছে, যাতে ভারতও উপকৃত হয়। এরমধ্যে রয়েছে বিভিন্ন দেশের বাজারে প্রবেশাধিকার ও শুল্কের মতো বিষয়গুলো।

তবে ভারতকে ছাড়াই একটি অস্থায়ী চুক্তি স্বাক্ষর করতে পারে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলো। ধারণা করা হচ্ছে, ২০২০ সাল নাগাদ চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হতে পারে।

আমদানি বৃদ্ধি, বাণিজ্য ঘাটতি ও দেশীয় শিল্পকে বাঁচানোর মতো বিষয়গুলো নিয়েই বেশি উদ্বিগ্ন ভারত। সবচেয়ে সুবিধাপ্রাপ্ত দেশের মর্যাদা না পাওয়ার বিষয়টিও তুলে ধরে দিল্লি।

কংগ্রেসের প্রভাবশালী নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী চুক্তিটির বিরোধিতা করে জানিয়েছেন, ভারত ব্যাপক আর্থিক মন্দার মুখোমুখি। বিজেপির ছয় বছরের শাসনে  ৯০ লাখ কর্মসংস্থান কমেছে। চুক্তিটি হলে বেকারত্ব আরো বৃদ্ধি পাবে।

উল্লেখ্য, রিজিওনাল কম্প্রেহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপ হচ্ছে একগুচ্ছ চুক্তি। চুক্তির সঙ্গে যুক্ত রয়েছে বিশ্বের ১৬টি দেশ। আসিয়ানভুক্ত ১০টি দেশসহ চীন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ভারত। ভারত এবং ১৫টি এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশের নেতারা সোমবার থাইল্যান্ডে ‘আরসিইপি’ তৈরির ক্ষেত্রে সাত বছরের আলোচনার সফল সমাপ্তি ঘোষণা করবেন, এমনটাই আশা করা হয়েছিল।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা
এই বিভাগের আরো খবর