• বুধবার   ১২ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৯ ১৪২৮

  • || ৩০ রমজান ১৪৪২

আজকের খুলনা

আঠারো মাইল-কয়রা ৬৪ কিঃমি সড়কের নির্মাণ কাজ শুরু

আজকের খুলনা

প্রকাশিত: ১০ এপ্রিল ২০২১  

আঠারো মাইল, তালা, পাইকগাছা, বেতগ্রাম, কয়রা পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের ৬৪ কিঃমিঃ সড়কের নির্মাণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে সড়কের নির্মাণ কাজ শুরু করেছে খুলনা সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর। ঠিকাদার মোজাহার এন্টারপ্রাইজ (প্রাঃ) লিঃ এ কাজটি করছে।
পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার ইকবাল মন্টু বলেন, এ অঞ্চলের মানুষের আকাঙ্খা পুরণ হচ্ছে। এখানাকার উপকুলীয় মানুষ খুবই মানবেতরভাবে জীবনযাপন করে। পাশাপাশি অধিকাংশ মানুষ প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময়ে পানি বন্দি হয়। তাছাড়া এই সড়কটি চালু হলে এ অঞ্চলের মানুষদের অর্থনৈতিক আমুল পরিবর্তন হবে। যোগাযোগ অবস্থা ভাল হলে। এখানে যে সব মৎস খামার রয়েছে বিশেষ করে চিংড়ি ও বিভিন্ন কৃষি ক্ষেত্রে অধিক উন্নতি সাধিত হবে। পাশপাশি যাতায়াত ও যোগাযোগ অনেকটা সহজ হবে।
খুলনা সড়ক ও জনপথ বিভাগের বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আনিসুজ্জামান মাসুদ বলেন, ৬৪ কিঃমিঃ সড়কটি যথাযথ মানে উন্নীতকরণ করা হচ্ছে। সড়কটি বেতগাম, তালা, পাইকগাছা, কয়রা সড়ক পর্যন্ত নির্মাণ হবে এবং আগামী দুই বছরের মধ্যে কার্যক্রম শেষ করতে হবে। একেনেক কর্তৃক গত বছর ২১ জানুয়ারী অনুমোদন হয়। তবে মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে সড়কটির নির্মাণ কার্যক্রম যথাসময়ে শুরু করা হয়ে উঠেনি। বর্তমান ডিপিপি অনুযায়ী প্রকল্প ব্যয় ৩৩৯ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। কার্যাদেশ প্রাপ্তঠিকাদার মোজাহার এন্টারপ্রাইজ (প্রাঃ) লিঃ। চুক্তির মেয়াদ ২ বছর। প্রকল্পের মূল কাজ ৪-লেন সড়ক নির্মাণ ৬৪কিঃমি। বিদ্যমান পেভমেন্টম জবুতিকরণ ২৫.৫১কিঃমিঃ। বিদ্যমান পেভমেন্ট পূণঃনির্মাণ -৬.৫৮ কিলোমিটার। বাঁক সরলীকরণ ৪.৮০ কিলোমিটার। সার্ফেসিং -৬০.৪৪ কিলোমিটার। রিজিড পেভমেন্ট নির্মাণ – ৩.৬১ কিলোমিটার। আর, সি, সিবক্স কালভার্ট নির্মাণ -২৩টি। নদীশাসন – ১০০.০০ মিটার। আর, সি, সিপ্যাল সাইডিং – ৯০০০.০০ মিটার। ব্রিকটো-ওয়াল -৭২০০.০০ মিটার। আর, সি, সি, টো-ওয়াল – ১৮০০.০০ মিটার আর, সি, সি, রিটেই নিংওয়াল – ৭০০.০০ মিটার। সার্ফেসড্রেণ – ২৩৫০.০০ মিটার। কংক্রিটইউ-ড্রেননির্মাণ-৬৫০০.০০ মিটার। ভূমি অধিগ্রহণ ১১.২৫ হেক্টর জমি। যার বাজার মুল্যে ৭১ কোটি ৮২ লাখ .২৯ হাজার টাকা। তবে আশাবাদি খুবই দ্রুততার সাথে এবং সিডিউল অনযায়ী শতভাগ সচ্ছতার সাথে সড়কটির নির্মাণ কার্যক্রম শেষ করা হবে।
তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মসিউর রহমান বলেন, এ অঞ্চলের মানুষদের যোগাযোগ ব্যবস্থ্যা খুবই খারাপ। খুলনা থেকে পাইকগাছা আসতে যানবহনে তিন ঘন্টা সময় লাগে। এই সড়কটি সোজা করাসহ নির্মাণ করা হলে খুলনা থেকে পাইকগাছা আসতে সময় লাগবে মাত্র সোয়া এক ঘন্টা। কয়েক যুগ আগে থেকে এই সড়কটি নির্মাণ করার দাবি জানিয়ে আসছি। আজ সেই আশা ও দাবি পুরণ হচ্ছে।
বেতগ্রামের বাসিন্দা আজাদ হোসেন বলেন, আমরা বর্ষা মৌসুমে খুবই কষ্টের মধ্যে থাকি। তাছাড়া আমাদের অঞ্চলে যে পরিমান চিংড়ি, বাগদাসহ বিভিন্ন প্রকার মাছ চাষ, গরু, ছাগলসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় মালামাল রপ্তানি করার জন্য সড়কটি খুবই গুরুত্ব পাবে।
খুলনা ৬ আসনের সংসদ সদস্য আখতারুজ্জামান (বাবু) বলেন, আঠারো মাইল টু কয়রা ৬৪ কিঃমিঃ সড়কটি নির্মাণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তা এই দক্ষিণাঞ্চলের মানুষদের ৫০ বছর আগের দাবি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালে যখন পাইকগাছা সফরে আসেন। তখন এই অঞ্চলের মানুষ একটি স্বারকলিপি প্রদান করেন বঙ্গবন্ধুর নিকট। যেন আমাদের এ উপকুলীয় অঞ্চলের মানুষদের যোগাযোগের জন্য এই সড়কটি তৈরি করা হয়। তবে এর মধ্যে পার হয়ে গেছে ৫০ বছর বর্তমান। দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দাবির বিষয়টি সংসদে উত্থাপন করার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে বিষয়টি আসে। তাৎক্ষণিক বিষয়টির জন্য ব্যবস্থ্যা গ্রহণ করেন। যার প্রেক্ষিতে জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভায় অনুমোদিত হয়। এই সড়কটি নির্মাণের ফলে এ অঞ্চলের মানুষদের অর্থনৈতিক আমুল পরিবর্তন হবে।

আজকের খুলনা
আজকের খুলনা